চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৯ নভেম্বর, ২০১৯ | ৪:৩৪ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা হ কর্ণফুলী

যৌতুকের জন্য মারধরে গৃহবধূর মৃত্যু

পলাতক স্বামী রংপুরে গ্রেপ্তার

কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহায় যৌতুকের জন্য স্ত্রী জান্নাত আরা বেগম প্রকাশ বুলুকে (৩০) বেদম মারধর করেছিলেন মো. রহিম উল্লাহ (৪৮)। মারধরে গুরুতর আহত স্ত্রী জান্নাত আরার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্ত্রী মারা গেলে পালিয়ে যান তিনি। কিন্তু পালিয়েও তার শেষ রক্ষা হয়নি। কর্ণফুলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জোবায়ের সৈয়দের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ৭ নভেম্বর রংপুর জেলায় অভিযান চালিয়ে রহিম উল্লাহকে গ্রেপ্তার করেন। ঘটনার প্রায় দুই মাস পর রংপুর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার (গতকাল) সকালে চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হয়। গতকাল বিকেলে তাকে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফিউদ্দিনের আদালতে হাজির করা হলে তিনি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নিদের্শ দেন।

কর্ণফুলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জোবাইর সৈয়দ দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, ‘২০০৭ সালে কক্সবাজারের পেকুয়ার রহিম উল্লাহ একই এলাকার জান্নাত আরা বেগম প্রকাশ বুলুকে বিয়ে করেছিলেন। পেশায় মিষ্টি কারিগর রহিম উল্লাহ স্ত্রী জান্নাত আরা ও তাদের দুটি সন্তানকে নিয়ে কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ক্রসিং এলাকায় ভাড়াবাসায় বসবাস করতেন। পরে প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়ে রহিম আরও একটি বিয়ে করেন। বিভিন্ন সময় মিষ্টির দোকান দিতে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা এনে দিতে জান্নাত আরাকে চাপ দিতেন রহিম’।

ওসি (তদন্ত) আরো বলেন, কয়েক দফা বাপের বাড়ি থেকে টাকা এনে দিলেও গত ১২ সেপ্টেম্বর আবারও টাকা এনে দিতে ব্যর্থ হওয়ায় জান্নাত আরাকে বেদম মারধর করেন রহিম। মারধরে গুরুতর আহত স্ত্রী জান্নাত আরার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করেন রহিম। ২০ সেপ্টেম্বর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্ত্রী জান্নাত মারা গেলে পালিয়ে যান। পরে জান্নাত আরার ভাই বাদি হয়ে রহিম উল্লাহর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জোবাইর সৈয়দ বলেন, ঘটনার পরপর গ্রেপ্তার এড়াতে রহিম উল্লাহ কর্ণফুলী এলাকা থেকে পালিয়ে যান। কিন্তু তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় টানা দুইদিন রংপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। শুক্রবার (গতকাল) সকালে তাকে চট্টগ্রাম নিয়ে আসা হয়েছে। বিকেলে তাকে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফিউদ্দিনের আদালতে হাজির করা হলে তিনি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নিদের্শ দেন বলে জানা ওসি।

The Post Viewed By: 22 People

সম্পর্কিত পোস্ট