চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৯ নভেম্বর, ২০১৯ | ৪:৩৪ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা হ সীতাকু-

মৃত্যুর খবরে দিশেহারা পরিবার কুয়েতে দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল সীতাকু-ের বেলালের

পরিবারের ভাগ্য বদলাতে কুয়েত গিয়ে সেখানেই জীবন দিলেন সীতাকু-ের এক যুবক। বৃহস্পতিবার রাতে কর্মরত অবস্থায় মাথায় থাইগ্লাস পড়ে নিহত হন তিনি। নিহত যুবকের নাম মো. বেলাল (৩৮)। তিনি উপজেলার ভাটিয়ারী ইউনিয়নের মাদামবিবিরহাট খাদেমপাড়ার মো. আবদুর রহমানের ছেলে।

নিহতের পরিবার এ দুর্ঘটনার কথা নিশ্চিত করেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সীতাকু-ের মাদামবিবিরহাট খাদেমপাড়ার বাসিন্দা বেলাল পরিবারের আর্থিক স্বচ্চলতা ফেরাতে প্রায় ১৫ বছর আগে কুয়েত যান। সেখান থেকে নিয়মিত দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠানোর পাশাপাশি নিজেও দেশে আসতেন।

বেলালের স্বজনরা জানান, দেশে এসে প্রায় চার বছর আগে বিয়ে করেন বেলাল। তার একটি ২ বছর বয়সী কন্যা সন্তানও রয়েছে। সর্বশেষ চলতি বছরের মে মাসের দিকে দেশে আসেন বেলাল। স্ত্রী-সন্তান ও পরিবার নিয়ে সুন্দর সময় কাটিয়ে আগস্টে ফিরে যান। কুয়েতে কষ্ট্রাক্টশনের কাজের কন্ট্রাক্টরি করতেন বেলাল। বেলালের ভাই মো. হেলাল সাংবাদিকদের জানান, গত বৃহস্পতিবারও বেলাল একটি বিল্ডিংয়ে কিছু থাইগ্লাস লাগানোর কাজ করছিলেন। তার লোকজন উপরে গ্লাস লাগাচ্ছিলেন আর তিনি নিচে সিঁড়িতে দাঁড়িয়েছিলেন। এসময় অসতর্কতাবশত একটি গ্লাস বেলালের মাথায় পড়লে গুরুতর আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। হেলাল বলেন বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে বেলাল ফোন করে স্ত্রীসহ পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলেন। এর মাত্র তিন ঘণ্টা পর রাত ৮টায় তার সহকর্মীরা ফোন করে দুর্ঘটনায় বেলালের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান। বেলালের প্রতিবেশি মো. আলী বলেন, একটি ছেলে তার জীবনের বেশিরভাগ সময়ই বিদেশে কাটিয়ে দিয়ে দেশে অর্থ পাঠিয়ে দেশকে সমৃদ্ধ করেছে। এখন আমরা চাই কোনরকম ঝামেলা ছাড়াই তার মৃতদেহ যেন দেশে আসে। এ ব্যাপারে সহযোগিতার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান তার স্বজনরাও।

The Post Viewed By: 54 People

সম্পর্কিত পোস্ট