চট্টগ্রাম শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৮ নভেম্বর, ২০১৯ | ৪:০৪ অপরাহ্ন

কক্সবাজার সংবাদদাতা

কক্সবাজারে ইজতেমায় লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়

কক্সবাজার জেলা ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে সারগতীর ডায়াবেটিক পয়েন্টের উত্তরপাশের মাঠে লাখো মুসল্লিরা জুমার নামাজ আদায় করেছেন। জুমার নামাজের ইমামতি করেন মুফতী মাওলানা মোর্শেদুল আলম। জুমার নামাজে অংশ নিতে সকাল থেকে কক্সবাজার ও এর আশেপাশের এলাকা থেকে মুসল্লিারা পায়ে হেঁটে ও দুরদুরান্ত থেকে গাড়ি নিয়ে ইজতেমা ময়দানে আসেন। এর আগে বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ইজতেমার দ্বিতীয় দিনের কার্যক্রম শুরু হয়।

শনিবার (৯ নভেম্বর) ১১ টা থেকে দুপুরের ভেতরে আখেরি মুনাজাতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত ইজতেমার কার্যক্রম শেষ হবে। ইজতেমা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এদিকে বিপুল মানুষের কারণে কক্সবাজার শহরের আশেপাশের সড়কগুলোতে সকাল থেকে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। ইজতেমা মাঠে স্থান সংকুলন না হওয়ায় অনেককেই দেখা গেছে খোলা জায়গায় খবরের কাগজ, জায়নামাজ, পলিথিন ও হোগলা বিছিয়ে অবস্থান নিয়েছেন। ইজতেমাস্থলে সাধারণ মুসল্লিাদের নিরাপত্তা দিতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পুলিশ, আনসার ও‌ র‌্যাব সদস্যসহ বিভিন্ন গোয়েন্দাসংস্থার সদস্যরা নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। ইজতেমা ময়দানে স্বাস্থ্য বিভাগ, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি পানি সরবরাহ ও আগত মুসল্লিদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য মাঠে অবস্থান করছেন।ইজতেমায় হ্নীলা থেকে আসা আবদুল্লাহ আল খালেদ বলেন, আল্লাহর রেজামন্দি হাসিলের উদ্দেশে ইজতেমায় অংশগ্রহণ করলাম। খুব ভালো লেগেছে। ইবাদত বন্দেগী করতে পেরে।

ইজতেমার আয়োজকরা জানান, বিদেশী মুসল্লিসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অনেক মুসল্লি বিভিন্ন মেয়াদী চিল্লার নিয়ত করে জামাতবন্দি হয়ে ইজতেমা ময়দানেই রয়েছে। তারা আখেরী মোনাজাত শেষ করে তাবলীগের কাজে বিভিন্ন অঞ্চলে বেরিয়ে যাবেন। মুসল্লিদের সুশৃঙ্খল অবস্থানের জন্য ইজতেমা ময়দানে চটের তৈরি পুরো প্যান্ডেলকে বিভিন্ন খিত্তায় ভাগ করে বিভিন্ন উপজেলাওয়ারী মুসল্লিদের অবস্থানের জন্য স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। জুমার নামাজে স্থানীয় এমপি, জেলা প্রশাসক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

 

পূর্বকোণ/এম

The Post Viewed By: 63 People

সম্পর্কিত পোস্ট