চট্টগ্রাম শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৮ নভেম্বর, ২০১৯ | ৩:০৭ পূর্বাহ্ন

পূর্বকোণ ডেস্ক

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ সর্বমহলের শোক

সংসদ সদস্য ও জাসদনেতা মইনউদ্দীন খান বাদলের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকারসহ সর্বমহল থেকে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়েছে। সংসদ সদস্য ও জাসদনেতা মইনউদ্দীন খান বাদলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বৃহস্পতিবার পৃথক বার্তায় তারা এ শোক জানান। শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি বলেন, মরহুম মইনউদ্দিন খান বাদল সংসদের বিভিন্ন কমিটিসহ বিভিন্ন ইস্যুতে গঠনমূলক মতামত দিয়ে সংসদ পরিচালনায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। বাংলাদেশের সংসদীয় ইতিহাসে তার অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। রাষ্ট্রপতি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।
এদিকে সংসদ সদস্য বাদলের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক শোকবার্তায় বলেন, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। এই বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে দেশ ও জাতি একজন দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদকে হারালো। প্রগতিশীল আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা রাখা এ নেতাকে জনগণ সবসময় মনে রাখবে। প্রধানমন্ত্রী ত৭ার আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন : আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি গভীর শোক প্রকাশ, তাঁর আত্মার মাগফেরাত কামনা ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।
ভূমি মন্ত্রীর শোক : ভূমি মন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী মইনুদ্দিন খান বাদল এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। শোক বার্তায় তিনি বলেন, ‘মইনুদ্দিন খান বাদল ১৯৭১ সালে জাতীয় মুক্তির জন্য ঐতিহাসিক সংগ্রামে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। তাঁর ইন্তেকালে দেশ ও জাতি একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ এবং সমাজ সেবককে হারাল। বাংলাদেশের একজন অভিজ্ঞ পার্লামেন্টারিয়ান হিসেবে জাতীয় সংসদে তাঁর অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তিনি মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

সামশুল হক চৌধুরী : জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ সামশুল হক চৌধুরী এমপি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবার বর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, তিনি একজন সফল রাজনীতিক ও পার্লামেন্টেরিয়ান হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। আমি তাঁর আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।
শিক্ষা-উপমন্ত্রীর শোক : আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি ও মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোকবার্তায় বলা হয়, মাঈনুদ্দিন খান বাদল রাজপথে এবং জাতীয় সংসদে মুক্তিযুদ্ধের অবিনাশী চেতনার স্বপক্ষের সাহসী কণ্ঠ হিসেবে ভালবাসায় সিক্ত ছিলেন। তাঁরা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

সিটি মেয়র : শোক প্রকাশ করেছেন সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন। শোক বার্তায় সিটি মেয়র বলেন, তিনি ছিলেন একজন একাত্তরের রণাঙ্গণের বীর সেনানী। সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদের সাথে তিনি কখনো আপোষ করেননি। মেয়র মরহুমের আত্মার শান্তি কামনা এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এছাড়াও চসিক ভারপ্রাপ্ত মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনীও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
মহানগর আওয়ামী লীগ : মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। নেতৃবৃন্দ মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ : উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি এবং সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম.এ সালাম গভীর শোক প্রকাশ ও তাঁর আত্মার মাগফেরাত এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।
আরো যারা শোক প্রকাশ করেছেন- বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) এর ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম, সিনিয়র সহ-সভাপতি ওমর হাজ্জাজ ও সহ-সভাপতি তরফদার মো. রুহুল আমিন, আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ তাহের শাহ্ (মা.জি.আ), শাহাজাদা আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ কাশেম শাহ্ (মা.জি.আ.), শাহাজাদা আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ হামিদ শাহ্ (মা.জি.আ.), পিএইচপি ফ্যামেলির চেয়ারম্যান আলহাজ সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, আনজুমান ট্রাস্টের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ মুহাম্মদ মহসিন, সেক্রেটারী জেনারেল আলহাজ মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, এডিশনাল জেনারেল সেক্রেটারি আলহাজ মুহাম্মদ সামশুদ্দিন, জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারি আলহাজ মুহাম্মদ সিরাজুল হক, এসিস্টেন্ট জেনারেল সেক্রেটারি এস.এম. গিয়াস উদ্দিন শাকের, ফাইন্যান্স সেক্রেটারি মুহাম্মদ সিরাজুল হক, প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারি প্রফেসর কাজী শামসুর রহমান, কেন্দ্রীয় গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ‘র চেয়ারম্যান পেয়ার মোহাম্মদ, জামেয়া মাদ্রাসার চেয়ারম্যান প্রফেসর মুহাম্মদ দিদারুল ইসলাম, অধ্যক্ষ মুফতি মাওলানা সৈয়দ মুহাম্মদ অছিয়র রহমান, সাবেক সিটি মেয়র মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, বিজিএমইএ’র প্রথম সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালাম, চান্দগাঁও আবাসিক (বি-ব্লক) কল্যাণ সমিতির সভাপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরী, বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি-বাকশিস চট্টগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ দবির উদ্দিন খান ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবু তাহের চৌধুরী, মইন উদ্দিন খান বাদল এমপি’র ইন্তেকালে শোক প্রকাশ করেছেন বোয়ালখালী চরণদ্বীপ রজভীয়া ইসলামিয়া ফাযিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আল্লামা মুহাম্মদ শোয়াইব রেজা, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সভাপতি জিয়াউদ্দিন তারেক আলী ও সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ, রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি চট্টগ্রাম জেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবদুল নবী এবং সাধারণ সম্পাদক অশোক সাহা, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা ও মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, চট্টগ্রাম জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া কামিল মাদরাসার পরিচালনা পরিষদের সভাপতিপ্রফেসর মোহাম্মদ দিদারুল ইসলাম, অধ্যক্ষ আল্লামা সৈয়দ মুহাম্মদ অছিয়র রহমান, সাজ্জাদানশীনে দরবার-এ- গাউসুল আজম মাইজভান্ডারী, গাউসিয়া আহমদিয়া মঞ্জিল এবং সভাপতি, আঞ্জুমানে মোত্তাবেয়ীনে গাউসে মাইজভান্ডারী আলহাজ শাহ সুফী ডা. সৈয়দ দিদারুল হক মাইজভান্ডারী এবং মহাসচিব আলহাজ সৈয়দ মাহমুদুল হক, চন্দনাইশ প্রেসক্লাবের সভাপতি শামসুল আলম টগর ও সাধারণ সম্পাদক এস এম মহিউদ্দীন, তৃণমূল জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (তৃণমূল-এনডিএম) কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান খোকন চৌধুরী ও ভাইস চেয়ারম্যান কাজী শহিদ, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ’ ৭১ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম মন্টু, সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকী, মহানগর সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ডা. সরফরাজ খান চৌধুরী বাবুল, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট বি.কে বিশ্বাস বিপ্লব, মাইজভান্ডর দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন শাহ্সূফী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী (মা.জি.আ.), বোয়ালখালী সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজ গভর্নিং বডি, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান আল্লামা ছৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদী ও মহাসচিব আল্লামা জয়নুল আবেদীন জুবাইর, বাংলাদেশ জাসদ চট্টগ্রাম উত্তর, দক্ষিণ, মহানগর শাখার নেতৃবৃন্দ ইন্দু নন্দন দত্ত, এডভোকেট আবু মো. হাসেম, নুরুল আলম মন্টু, জাহাঙ্গীর হোসেন চৌধুরী, ভানু রঞ্জন চক্রবর্তী, সৈয়দুল আলম, আবু বক্কর সিদ্দিক, স্বপন চৌধুরী, এস এম আক্তারুল আলম প্রমুখ। ইসলামী ফ্রন্ট বোয়ালখালী শাখার সভাপতি স.ম এনামুল হক, সাধারণ সম্পদক আকতার হোসেন তালুকদার, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুর রহিম আলকাদেরী, সাধারণ সম্পাদক কাজী ওবাইদুল হক হক্কানী, চট্টগ্রাম গণ-অধিকার ফোরামের চেয়ারম্যান আলহাজ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, মহাসচিব এম.এ হাশেম রাজু, মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ও বিজিএমইয়ের সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি আলহাজ এরশাদ উল্লাহ।

The Post Viewed By: 74 People

সম্পর্কিত পোস্ট