চট্টগ্রাম বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯

২১ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:৫৩ পূর্বাহ্ণ

চিটাগাং চেম্বারের সেমিনারে বক্তারা

আরএমজি কাক্সিক্ষত প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পারছে না

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি (সিসিসিআই) ও প্রাইজ ওয়াটার কুপারস (পিডব্লিউসি)’র যৌথ আয়োজনে ‘অপারেশন্স এক্সিলেন্স ফোরাম ফর আরএমজি ম্যানুফ্যাকচারার্স ইন চট্টগ্রাম’ শীর্ষক সেমিনার গত ১৯ অক্টোবর ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারস্থ বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয়।

চট্টগ্রামে অবস্থিত গার্মেন্টস শিল্পের ব্যবসায়িক কার্যক্রমে সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পিডব্লিউসির বিশেষজ্ঞ সহায়তা প্রদানের উদ্দেশ্যে একটি ফোরাম গঠনের জন্য এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়। চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম’র সভাপতিত্বে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন চেম্বার সিনিয়র সহ-সভাপতি ওমর হাজ্জাজ, বিজিএমইএ’র ভারপ্রাপ্ত প্রথম সহ-সভাপতি অঞ্জন শেখর দাশ, পিডব্লিউসি-বাংলাদেশ’র ম্যানেজিং পার্টনার মামুন রশিদ, চেম্বার পরিচালকদ্বয় এস. এম. আবু তৈয়ব ও সৈয়দ মোহাম্মদ তানভীর, ফারকান টেক্স’র এমডি ফরহাদ, ওয়েল ফ্যাশন’র এমডি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, বিজিএমইএ’র সাবেক পরিচালক মো. সাইফুল্লাহ মুনসুর ও ক্যান্ট ফ্যাশন’র এমডি মইন উদ্দীন আহমেদ। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পিডব্লিউসি-ইন্ডিয়া’র ম্যানেজমেন্ট কনসালটিং এক্সিকিউটিভ ডাইরেক্টর অরুন রায় চৌধুরী ও এসোসিয়েট ডাইরেক্টর অর্জুন রায়। চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম বলেন, দেশের প্রধান রপ্তানি খাত আরএমজি কাংখিত প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পারছে না।

গত ১ সেপ্টেম্বরে রপ্তানি আয় হয়েছে ২৯১ কোটি ৫৮ লাখ ডলার যা গত বছরের (২০১৮) সেপ্টেম্বরের তুলনায় ৭.৩০% কম। ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় রপ্তানি আয় কমেছে ২.৯৪%। এই অবস্থা থেকে উত্তরণে অপারেশনাল দক্ষতা উন্নয়ন, মূল্য সংযোজন ও পণ্যের বহুমূখী করণের উপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। চেম্বার সিনিয়র সহ-সভাপতি ওমর হাজ্জাজ বলেন, বাংলাদেশ দীর্ঘদিন ধরে তৈরীপোশাক রপ্তানিতে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। তবে প্রতিযোগী দেশগুলো যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তার সাথে সংগতি রেখে নিজের অবস্থান ও প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে হলে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট সকল ক্ষেত্রে সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে। বিজিএমইএ’র ভারপ্রাপ্ত প্রথম সহ-সভাপতি অঞ্জন শেখর দাশ বলেন, তৈরীপোশাকের রপ্তানি কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে যা ১০ বছরের মধ্যে প্রথম ঋণাত্মক রপ্তানি প্রবৃদ্ধি। বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, নারীর ক্ষমতায়ন এবং দারিদ্র বিমোচনে এ সেক্টর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তাই তিনি আরএমজি খাত রক্ষায় শক্তিশালী নীতি কৌশল প্রণয়নের উপর গুরুত্বারোপ করেন। পিডব্লিউসি-বাংলাদেশ’র ম্যানেজিং পার্টনার মামুন রশিদ বলেন, অপারেশন্স এক্সিলেন্স ফোরাম গঠনের উদ্দেশ্য হচ্ছে, বাংলাদেশের পোশাক শিল্পোদ্যোক্তাদের নেট মার্জিন বৃদ্ধি ও প্রতিযোগিতামূলক সক্ষমতা বাড়ানো। তিনি ফোরামের মাধ্যমে পোশাক শিল্প খাতের খরচ কমানো, দক্ষতা ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির মাধ্যমে চট্টগ্রামস্থ পোশাক শিল্পের হারানো গৌরব ফিরে আসবে বলে মন্তব্য করেন। সেমিনারে চট্টগ্রামস্থ গার্মেন্টস শিল্প মালিকগণ অংশগ্রহণ করেন।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 53 People

সম্পর্কিত পোস্ট