চট্টগ্রাম বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ | ৩:২৬ পূর্বাহ্ণ

নব প-িত বিহারে কঠিন চীবর দানে শিক্ষা উপমন্ত্রী

মানবকল্যাণের অগ্রযাত্রায় বৌদ্ধধর্ম দর্শন ও সংস্কৃতির অবদান অনন্য

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি বলেছেন, মানবকল্যাণের অগ্রযাত্রায় বৌদ্ধধর্ম দর্শন ও সংস্কৃতির অবদান অনন্য মাত্রায় ছুঁয়েছে। বৌদ্ধ ধর্ম বিশ^ সভ্যতাকে বিকশিত করেছে।

তিনি গতকাল (শুক্রবার) বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান উৎসব নগরীর কাতালগঞ্জস্থ প্রাচীন বৌদ্ধিক প্রতিষ্ঠান নব প-িত বিহারের দানোত্তম শুভ কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, মহামানব বুদ্ধ অলৌকিক কিম্বা অপ্রাকৃত, অদৃশ্য অজ্ঞাত ও অপ্রমাণ্য শক্তির কাছে মাথা নোয়াননি। তিনি সর্বোতভাবে নির্ভর করেছেন আত্মশক্তির উপর, নিজের সাধনা আর আত্মোপলব্ধির পর। এভাবে তিনি বুদ্ধত্ব জীবনকে সার্থক করে তুলেছিলেন।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, বাংলাদেশের বৌদ্ধ সংস্কৃতি অতি প্রাচীন। বৌদ্ধ ঐতিহ্যগুলো সংস্কার করে বিশ^বাসীর কাছে যাতে তুলে ধরতে পারে বাংলাদেশ সরকার তা নিয়ে কাজ করছে। তিনি প্রাচীন নব প-িত বিহারের নির্মাণ কাজে নিজ এবং সরকারের পক্ষ থেকে সহযোগিতার আশ^াস প্রদান করেন।

বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার উপসংঘনায়ক অধ্যাপক বনশ্রী মহাথের’র সভাপতিত্বে দানসভার শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন ঢাকা ধর্মরাজিক বৌদ্ধ মহাবিহারের অধ্যক্ষ বুদ্ধপ্রিয় মহাথের। বিশেষ অতিথি ছিলেন, জ্ঞানানন্দ মহাথের, রাজগুরু অভয়ানন্দ মহাথের। অতিথি ছিলেন, ওয়ার্ল্ড এলায়ান্স বুড্ডিস্ট’র প্রেসিডেন্ট ভেনারেবল ড. প্রনচায় পিনাপঙ থাইল্যান্ড।

প্রধান বক্তা ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা ম-লীর সদস্য, অধ্যক্ষ ড. প্রনব কুমার বড়–য়া। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের যুগ্ম মহাসচিবদেবপ্রিয় বড়–য়া, কঠিন চীবরের তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা করেন, নবপ-িত বিহারের অধ্যক্ষ অধ্যাপক উপানন্দ মহাথের, সিলেট বৌদ্ধ বিহার অধ্যক্ষ সংঘানন্দ থের, নব প-িত বিহারের উপাধ্যক্ষ তন্হংকর ভিক্ষু, করুণানন্দ থের।

ব্যাংকার প্রীতিশ রঞ্জন বড়–য়া ও চম্পাকলি বড়–য়ার সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, প্রফেসর ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়–য়া, প্রমথ বড়–য়া, অনিমেষ তালুকদার, ডা. প্রীতি বড়–য়া, প্রকৌশলী পরিতোষ বড়–য়া, আ. লীগ নেতা মিথুন বড়–য়া, কানন চৌধুরী, যুবনেতা পুস্পেন বড়–য়া কাজল, মানস বড়–য়া, শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা ও কঠিন চীবর দানোৎসব উদযাপন পরিষদের সভাপতি কমলেন্দু বিকাশ বড়–য়া, সম্পাদকীয় প্রতিবেদন পাঠ করেন উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক বিপ্লব বড়–য়া।
সবশেষে সংগীত শিল্পী সুমন বড়–য়া ও নৃত্যশিল্পী প্রমা অবন্তীর পরিচালনা ও নির্দেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং মনোমুগ্ধকর গীতিনাট্য পরিবেশিত হয়।

সকালে সংঘদান ও সদ্ধর্মসভা বাংলাদেশ বৌদ্ধ বিক্ষু মহাসভার সভাপতি শিক্ষাবিদ সুনন্দ মহাথেরো’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আশীর্বাণী প্রদান করেন অধ্যাপক বনশ্রী মহাথের। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট বুদ্ধপ্রিয় মহাথের। বিশেষ অতিথি ছিলেন জীবনান্দ মহাথের। উদ্বোধক ছিলেন বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার মহাসচিব বোধিমিত্র মহাথের। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অঞ্চল কুমার তালুকদার। সদ্ধর্মালোচনা করেন ড. প্রিয়দর্শী মহাথের, সুমানানন্দ ভিক্ষু, বক্তব্য রাখেন, অধ্যাপক ড. বিমান বড়–য়া, মুক্তিযোদ্ধা রূপায়ন বড়–য়া ,প্রধান শিক্ষক অনুপম বড়–য়া প্রমুখ।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 109 People

সম্পর্কিত পোস্ট