চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:২৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চন্দনাইশ

জোরপূর্বক জমি রেজিস্ট্রির মামলা

প্রধান আসামি কাউন্সিলর তৈয়ব জামিনে মুক্ত চন্দনাইশে

চন্দনাইশ পৌরসভার দক্ষিণ গাছবাড়িয়া এলাকার মৃদুল পালকে অপহরণ করে নিয়ে জমি রেজিস্ট্রি করার মামলায় প্রধান আসামি কাউন্সিলর তৈয়ব আলী জামিনে মুক্তি লাভ করে। গত ২৮ সেপ্টেম্বর আটককৃত ৩ আসামি ২০ দিন ধরে জেল হাজতে থাকলেও জামিন পায়নি।

গত ১৭ অক্টোবর মামলার ১ নং আসামি চন্দনাইশ পৌরসভার কাউন্সিলর তৈয়ব আলী স্বেচ্ছায় আদালতে আত্মসমর্পণ পূর্বক জামিনের আবেদন জানালে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কামরুন নাহার রুমি ৫’শ টাকার বন্ডে জামিনে মুক্তি দেন। অন্যদিকে মামলার ২ ও ৩ নং আসামি গত ২৮ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার হয়ে গত ১৭ অক্টোবর জামিন চাইলে বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চন্দনাইশ পৌরসভা দক্ষিণ গাছবাড়িয়া পালপাড়া এলাকার মৃত নিখিল চন্দ্র পালের ছেলে মৃদুল পালকে গত ২৮ আগস্ট অপহরণ করে হাশিমপুর সোনাইছড়ি পাহাড়ি এলাকায় নিয়ে আটক করে রাখে। অবশেষে গত ২৬ সেপ্টেম্বর মৃদুল পাল স্থানীয় কাউন্সিলর তৈয়ব আলীকে ১ নম্বর আসামি করে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ মামলার সূত্র ধরে গত ২৮ সেপ্টেম্বর ভোর রাতে দক্ষিণ গাছবাড়িয়া এলাকার কমল মিয়ার ছেলে মনির আহমদ (৫২), জাগির আহমদ (৩৬), মৃত নাদেরুজ্জামানের ছেলে মো. আলমগীরকে (৩৪) আটক করে। ২ ও ৩ নং আসামির আইনজীবী শওকত হোসাইন বলেছেন, গত ১৭ অক্টোবর মামলার প্রধান আসামি কাউন্সিলর তৈয়ব আলীকে জামিনে মুক্তি দেন বিচারক। অথচ জমির দলিল গ্রহীতা মনির আহমদ ও দলিলের সাক্ষী জাকির আহমদ গত ২৮ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার হয়ে ২০ দিন জেলে থাকার পরও জামিন পায়নি। বর্তমানে এ মামলার ৩ জন আসামি জেল হাজতে রয়েছে, ১ জন জামিনে আসলে ও অপর ৫ আসামী পলাতক রয়েছে বলে জানা যায়।

The Post Viewed By: 68 People

সম্পর্কিত পোস্ট