চট্টগ্রাম রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৮ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:২৪ am

নিজস্ব প্রতিবেদক

রেলের শতকোটি টাকার জমি উদ্ধার

১২শ বসতঘর ও দোকানপাট উচ্ছেদ

নগরীর কতোয়ালী থানাধীন জামতলা বস্তি ও বয়লার এভিনিউ এলাকায় রেলওয়ের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে গড়ে ওঠা স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালনা করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া এ অভিযানে ১২শ বসতঘর ও দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক এ অভিযান পরিচালনা করেন। উদ্ধার করা হয় সাড়ে ৩ একর ভূমি। যার মূল্য প্রায় শতকোটি টাকা। জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে কদমতলী এলাকার বাটালিরোড জামতলা বস্তি, বয়লার কলোনিসহ বেশকিছু এলাকায় রেলের জায়গায় দখল করে অবৈধ বসতি গড়ে সেখানে বাস করে আসছিল একটি মহল।

এসব স্থাপনা ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য গত কয়েক দিন ধরে মাইকিং করে ও নোটিশ দিয়ে সর্তক করা হলেও সরেনি কেউ। তবে বস্তিবাসীর অভিযোগ, কোনো নোটিশ ছাড়াই অভিযান চালানো হয়েছে। এতে করে কোনো মালামাল বের করতে পারিনি আমরা। দীর্ঘদিন যাবত আমরা এখানে বসবাস করছি। হঠাৎ করে উচ্ছেদ করলে আমরা যাবো কোথায়। এখানে যারা বসবাস করি তারা সবাই গরীব। কোথাও বাসা ভাড়া নিয়ে থাকার মত ক্ষমতা আমাদের নেই। এ সময় পুনর্বসানের আবেদন জানায় স্থানীয়রা। তারা বলেন, রোহিঙ্গারা মিয়ানমার থেকে এসে যদি এদেশে আরাম আয়েশে থাকতে পারে তাহলে আমাদের দোষ কি?। আমরাতো এদেশেরই নাগরিক। সরকার তাদের জন্য থাকার ব্যবস্থা করলে আমাদের থাকার ব্যবস্থা কেনো কেড়ে নেবে।

এদেশে আগে আমাদের হক, তারপর রোহিঙ্গাদের। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মাহাবুবুর রহমান পূর্বকোণকে বলেন, ‘নগরীতে রেলওয়ের মূল্যবান সম্পত্তি

অবৈধভাবে দখলে নিয়ে ভোগ করে আসছে কিছু মহল। এদের কাছ থেকে রেলের মূল্যবান সম্পদ উদ্ধার করতে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এরই ধারাবাহিকতায় চলছে উচ্ছেদ অভিযান। উদ্ধার হচ্ছে রেলের শত শত কোটি টাকার সম্পত্তি। আজ সকালে সিআরবির বয়লার কলোনিতে জেলা প্রশাসনের সহায়তায় উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এখানে রেলের জায়গা দখলে নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে বসতি। সকাল থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করে এখানে প্রায় ১২শ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। উদ্ধার করা হয় রেলওয়ের প্রায় সাড়ে তিন একর ভূমি। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি’

উচ্ছেদ অভিযানে আরো উপস্থিত ছিল নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (দক্ষিন) নোবেল চাকমা, কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.মহসীন ও রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী, ফায়ার সার্ভিস ও বিদ্যুৎ বিভাগ সহ পুলিশের প্রায় অর্ধশতাধিক সদস্য।

The Post Viewed By: 159 People

সম্পর্কিত পোস্ট