চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৭ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:৫২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা হ মহেশখালী

যে কোন মুহূর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা

মহেশখালীতে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ২

মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নে দীর্ঘদিনের চলমান বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের গুলিতে মো. শাহ ঘোনা গ্রামের মোশতাক আহমদের এর পুত্র মিজান নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত যুবককে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় জানাযার নামাজ শেষে স্থানীয় কালারমারছড়া বাজার এলাকার কবর স্থানে দাফন সম্পন্ন করা হবে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফের যে কোন মুহূর্তে সংর্ঘষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খোঁজ নিয়ে জানাযায়, দু’দিন আগে সংঘর্ষে ঘটনায় আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬ টায় সময় মারা যান তিনি। ঘটনায় আহত হয়েছে আরও দুই জন। অপর স্থানীয় চেয়ারম্যান তারেক বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড মোহাম্মদ রশিদ নামে আহত আরও একজনের অবস্থাও সংকটাপন্ন। আহত রশিদ বিভিন্ন মামলার আসামি হওয়ায় গোপনে তার চিকিৎসা চলছে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানাগেছে।

জানাগেছে, গত ১৩ অক্টোবর রবিবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার কালারমার ছড়া বাজারের পূর্ব পাশে দু’টি গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষে অন্ততঃ ৩ জন আহত হয়। আশংকাজনক হওয়ায় আহত মোহাম্মদ মিজানুর রহমান(৩৬) কে ওই দিনই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ওখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। প্রতিপক্ষের হামলায় আহত হওয়ার পর তার শরীর থেকে বেশ রক্তক্ষরণ হয়।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানাচ্ছেন, নিহত মিজান ওই দিন কালারমার ছড়া বাজারের পূর্ব পাশে মামার বাড়িতে খাবার দাওয়াতে অংশগ্রহণ করে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। ফেরার পথে তারেকের নেতৃত্বে স্থানীয় ছৈয়দ আহমদের পুত্র প্রতিপক্ষের জনৈক মোহাম্মদ রশিদের নেতৃত্বে একদল পেশাদার সন্ত্রাসীদের গুলিতে মো. শাহ ঘোনা গ্রামের মোশতাক আহমদের এর পুত্র মিজান নামের এক যুবকের মৃত্যুৎ হয়েছে।

জানাগেছে স্থানীয় প্রভাবশালী খউস্বর গ্রুপ ও কমলারর গ্রুপ এর মধ্যে বিরোধ দীর্ঘ দিনের। এ বিরোধের জের ধরেই সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটেছে বলে স্থানীয় অনেকেই জানিয়েছেন। ঘটনায় খউস্বর গ্রুপের মিজান ও কমলারব গ্রুপের রশিদকে আশংকাজনক অবস্থায় চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মিজান মৃত্যুবরণ করেন। তবে কালারমার ছড়ার একটি সূত্র বলছে, তাদের পক্ষে হত্যা মামলা দায়ের প্রক্রিয়া চলছে।

The Post Viewed By: 63 People

সম্পর্কিত পোস্ট