চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ | ৩:০৩ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা হ চন্দনাইশ

তৃতীয় দফায় চার্জশিট গ্রহণ মোজাফ্ফর হত্যা মামলা চন্দনাইশে

২০১৪ সালে উপজেলার পশ্চিম এলাহাবাদ এলাকায় গভীর রাতে জোরপূর্বক জায়গা দখল করতে গেলে বাধা দেন প্রবাসী মোজাফ্ফর। ওই সময় সন্ত্রাসীরা রাতের অন্ধকারে প্রবাসী মোজাফ্ফরকে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে। পরবর্তীতে মোজাফ্ফর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অস্থায় মারা যান। সে মামলায় দীর্ঘ তদন্ত শেষে গত ২৬ এপ্রিল পিবিআই’র পুলিশ পরিদর্শক শেখ মো. আলী ৪১ জনের নাম উল্লেখ করে চার্জশিট দাখিল করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৫ অক্টোবর গভীর রাতে সন্ত্রাসীরা কাঞ্চননগর এলাকার প্রবাসী মোজাফ্ফরের ক্রয়কৃত জায়গা জবরদখল করতে যায়। রওশন হাট চত্বরে জায়গা দখল করতে গেলে মোজাফ্ফর বাধা প্রদান করেন। এ সময় সন্ত্রাসীরা রাতের অন্ধকারে এলোপাতড়ি গুলি চালিয়ে মোজাফ্ফরকে আহত করে। তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় প্রথমে বিজিসি ট্রাস্ট হাসপাতালে পরে চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোজাফ্ফর মারা যান। এ ব্যাপারে মনুয়ারা বেগম বাদি হয়ে চন্দনাইশ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। সে মামলার সুত্র ধরে পুলিশ, সিআইডি, সর্বশেষ পিবিআই ৩ দফা চার্জসিট দাখিলের পর গত ২৯ আগস্ট আদালত চার্জশিট গ্রহণ করেন।

এই মামলায় পশ্চিম এলাহাবাদের একই পরিবারের আনোয়ার হোসেন, মো. শাহাজাহান, কামাল উদ্দিন, গোলাম কিবরিয়া, গোলাম মোস্তফা, মো. মাসুদ, অপরদিকে একই এলাকার রুবি আকতার, তাহামিনা আকতার, মো. ইলিয়াছ, মোহাম্মদ পুরের মো. হেলাল উদ্দিন, নজরুল ইসলাম নজু, আকতার হোসেন, মো. আবুল কালাম আজাদ, সিহাব উদ্দিন, মো. সেলিম প্রকাশ কার্গো সেলিম, আবু তাহের, আবু মুছা, জাগির হোসেন, বদিউল আলম, পশ্চিম এলাহাবাদের মো. নজরুল ইসলাম, মো. মহি উদ্দিন, হুরাইন জান্নাত রিয়া, মো. জাহাঙ্গীর, খোরশেদ আলম প্রকাশ খোরশেদ, নূর মিয়া, বদুর পাড়ার মো. ইব্রাহিম, আবুল কাশেম, দোহাজারী ঈদপুকুরিয়ার মো. শাহাজাহান, বারুদখানার এলাকার মো. আনিছুল হাসান, পূর্ব সাতবাড়িয়া মো. মিজানুর রহমান, হাজির পাড়ার মো. আবু ইউসুফ, হাশিমপুরের মো. সেলিম উদ্দিন, মুরাদাবাদের মো. নাছির উদ্দিন, পাশ্ববর্তী পটিয়ার খরনা এলাকার ইমরুল চৌধুরী প্রকাশ লিটু চৌধুরী, রশিদাবাদের দিদারুল আলম, চন্দনাইশ পৌরসভা চৌধুরীপাড়ার মো. মাবুদ চৌধুরী, মো. নাছির উদ্দিন, মধ্যম চন্দনাইশ গাবতল এলাকার নাছির উদ্দিন, জোয়ারা নগর পাড়ার মো. সরওয়ার উদ্দিন হিরু, পূর্ব চন্দনাইশে রফিকুল ইসলাম প্রকাশ সোনা রফিক, কাঞ্চননগর আব্বাস পাড়ার ওসমানসহ ৪১ জনকে আসামি করে তৃতীয়বারের মত চার্জসিট দাখিল করা হয়। সন্দিগ্ধ ১৫ জন আসামিকে মামলা থেকে বাদ দেয়া হয়। চন্দনাইশের চাঞ্চল্যকর মামলাটি দীর্ঘ ৬ বছর তদন্ত শেষে ৩ দফা চার্জসিট দাখিলের পর অবশেষে আদালত চার্জসিট গ্রহণ করেন। মামলায় বেশ কিছু আসামি পালাতক থাকার কারণে বিচার নিষ্পত্তির জন্য প্রস্তুত হয়নি।

The Post Viewed By: 281 People

সম্পর্কিত পোস্ট