চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:৪৯ পূর্বাহ্ণ

দুর্যোগ প্রশমন দিবসের সভায় জেলা প্রশাসক

প্রশিক্ষণই প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার হাতিয়ার

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন বলেছেন, দুর্যোগপ্রবণ দেশ হিসেবে বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছাস, ভূমিধস ও ভূমিকম্পসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করে এদেশের মানুষকে বেঁচে থাকতে হচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগের মাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ভৌগোলিক অবস্থান, প্রাকৃতিক পরিবেশ, জনসংখ্যার আধিক্য, ক্রমবর্ধমান ভূমিকম্পের ঝুঁকি ও বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি এদেশের জনগোষ্ঠীকে আরও বিপদাপন্ন করে তুলছে। প্রশিক্ষণই হচ্ছে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার প্রধান হাতিয়ার। আমরা যদি প্রাকৃতিক দুর্যোগকে মোকাবেলা করতে পারি তাহলে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার কাক্সিক্ষত লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছাতে পারবো। সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচির পাশাপাশি দুর্যোগের ঝুঁকি মোকাবেলা ও ক্ষয়-ক্ষতিরোধে প্রত্যেককে এগিয়ে আসতে হবে এবং এ ব্যাপারে সর্বত্র জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে প্রচার-প্রচারণা চালাতে হবে। তিনি গতকাল রবিবার সকালে নগরীর এম.এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিনেশিয়াম মাঠে আর্ন্তজাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উদযাপন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি পরবর্তী মহড়া অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য

রাখছিলেন। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থাপনায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন আর্ন্তজাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য- ‘নিয়ম মেনে অবকাঠামো গড়ি, জীবন ও সম্পদের ঝুঁকি হ্রাস করি’।

এ উপলক্ষে সার্কিট হাউসের সামনে বেলুন উড়িয়ে আর্ন্তজাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসের উদ্বোধন শেষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের নেতৃতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি প্রধান প্রধান সড়ক ঘুরে জিমনেশিয়াম মাঠে শেষ হয়।

এরপর সেখানে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্মীদের মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। সড়ক দুর্ঘটনা, অগ্নিকা- ও ভূমিকম্পসহ যেকোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে কীভাবে জানমালের ক্ষয়ক্ষতি রক্ষা করা যায় সে বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক মহড়া দেখানো হয়। জেলা প্রশাসক অগ্নি নির্বাপক যন্ত্রের মাধ্যমে আগুন নিভিয়ে মহড়ার শুভ সূচনা করেন। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা বিদুর্ষী সম্বোধী চাকমা, ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক মো. আবদুল মান্নান, উপ-সহকারী পরিচালক পূর্ণচন্দ্র মুৎসুদ্দী, সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. মন্নান, মহড়া কমান্ডার মো. রেজাউল কবির প্রমুখ। র‌্যালি ও আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী, ফায়ার সার্ভিস, রেড ক্রিসেন্ট, স্কাউটস্, গার্লস্ গাইড ও বিভিন্ন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেন। -বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 61 People

সম্পর্কিত পোস্ট