চট্টগ্রাম শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:৩২ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

বদলে গেছে খ্রিস্টান উপাসনালয় সড়ক

স্কুলে যাওয়ার পথে শিক্ষার্থীদের সামনে পড়তো ডাস্টবিন। নাকে রুমাল লাগিয়ে কিংবা নিশ^াস বন্ধ করেও গন্ধ থেকে রক্ষা পাওয়া পেত না পাশের জেএমসেন স্কুলের শিক্ষার্থী ও পথচারী। এখন সেই সড়ক দিয়ে যেতে চোখে পড়ে বিভিন্ন চারাগাছ।

এছাড়া দেয়ালে লাগানো হয়েছে কবি কাজী নজরুল ইসলামের ছবিসহ বিভিন্ন দৃশ্য। নগরীর ফিরিঙ্গী বাজারের খ্রিস্টান উপাসনালয় সংলগ্ন সড়কের বর্তমান দৃশ্য এটি। ওয়ার্ডের প্রতিটি এলাকা একে একে এভাবে সাজানো হবে বলে জানান স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, পূর্বের ডাস্টবিনের কারণে শিক্ষার্থী ও পথচারীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। বিশেষ করে জেএমমসেন স্কুলের শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাওয়া আসার পথে নাকে রুমাল চেপে ধরেও এর থেকে রক্ষা পায়নি। এখন সেখানে সৌন্দর্য বর্ধনের অংশ হিসেবে চারাগাছ লাগানো হয়েছে। এছাড়াও, দেয়ালে লাগানো হয়েছে বিভিন্ন মনীষীদের ছবি ও তাদের কবিতা, উক্তি ইত্যাদি।’

স্থানীয় কলেজ শিক্ষার্থী হোসাইন আহমেদ ইমু বলেন, ‘এক সময় রাস্তার পাশে বিভিন্ন চারা গাছ এবং দেয়ালে বিখ্যাত মনীষীদের ছবি-উক্তি দেখলেই মনে হতো নগরীর জামালখান ওয়ার্ড। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও সৌন্দর্যের জন্য এই ওয়ার্ড ‘হেলদি সিটি’ হিসেবে স্বীকৃতিও পেয়েছিল। এখন নগরীর সবগুলো ওয়ার্ডে জামালখানের মত সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য কাজ করছে। আগে যেখানে সড়কের পাশে ডাস্টবিন বা ময়লার স্তূপ ছিল, এখন সেখানে কোথাও চারাগাছ, কোথাও মনোমুগ্ধকর দৃশ্যে সাজানা হয়েছে।’ তবে এখনো সড়কের পাশে অনেক ডাস্টবিন রয়েছে বলে অভিযোগ করেন হোসাইন আহমেদ।

এ সম্পর্কে জানতে চাইলে ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব জানান, এক সময় এই সড়কে ডাস্টবিনের দুর্গন্ধে মানুষ হাঁটাচলা করতে পারতো না। জেএমমসেন স্কুলের পাশেই একটি ডাস্টবিন ছিল। এটার কারণে বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হতো। অবশেষে ডাস্টবিনটি সেখান থেকে সরিয়ে ফুলের চারা লাগিয়ে সৌন্দর্য বর্ধন করা হয়েছে। এখন জায়গাটিও অনেক সুন্দর হয়েছে। ক্রমান্বয়ে ফিরিঙ্গী বাজার ওয়ার্ডের প্রতিটি এলাকা থেকে ডাস্টবিন সরিয়ে সৌন্দর্য বর্ধন করা হবে বলেও জানান তিনি।

The Post Viewed By: 190 People

সম্পর্কিত পোস্ট