চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

১২ অক্টোবর, ২০১৯ | ৪:৩৭ অপরাহ্ণ

লোহাগাড়া সংবাদদাতা

থামছে না স্বজনদের কান্না

লোহাগাড়ায় ১৪ দিনেও উন্মোচন হয়নি সুফিয়ান মৃত্যুরহস্য

লোহাগাড়ায় যুবক আবু সুফিয়ান (৩৮) মৃত্যুরহস্য উম্মেচন হয়নি ১৪ দিনেও।  সহায় সম্বলহীন পরিবারের কর্তাকে হারিয়ে মা, স্ত্রী, ছেলে-মেয়েসহ স্বজনদের কান্না থামছে না। এ যুবকের আস্বভাবিক মৃত্যুতে তার সংসারে নেমে এসেছে অমানিষার ঘোর অন্ধকার। এ ব্যাপারে গত ৩০ সেপ্টেম্বর অজ্ঞাতনামা আসামী করে লোহাগাড়া থানায় মামলু রুজ করা হয়েছে। মামলার বাদী আবু সুফিয়ানের স্ত্রী খালেদা বেগম।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বাদিনীর স্বামী আবু সুফিয়ানকে পরিকল্পিত ভাবে কে বা কারা খুন করেছে। সে লোহাগাড়া উপজেলার উত্তর কলাউজানের সামমহাজন পাড়ার প্রয়াত নুরুল ইসলামের পুত্র। গত ২৮ সেপ্টেম্বর দিনগত রাতে অস্বাভাবিক মৃত্যু হয় যুবক আবু সুফিয়ানের। পরদিন ২৯ সেপ্টেম্বর সকালে কলাউজান সুখছড়ি কিন্ডার ইনষ্টিটিউট এর বারান্দায় এ যুবকের লাশ দেখতে পায় লোকজন। সংবাদ পেয়ে লোহাগাড়া থানা পুলিশ যুবকের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

মামলা তদন্তকারী কর্মকার্তা লোহাগাড়া থানার এসআই বিকাশ রুদ্র সাংবাদিকদের জানান, ময়নাতদন্ত রির্পোট পাওয়ার পর এ যুবকের মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে। তবে খুনের বিষয়টি ধারণায় নিয়ে মৃত্যুরহস্য উন্মোচনের চেষ্টা চলছে।

অপরদিকে, এ যুবকের মৃত্যুতে অসহায় হয়ে পড়েছে পুরো পরিবার। আবু সুফিয়ানের তিন সন্তান যথাক্রমে ছেলে সাদনান (১৩), মেয়ে নাদিরা (৭) ও জাইরিন (২)। ছোট দু’মেয়ে বার বার জিজ্ঞাস করছে তাদের বাবা’র কথা। কোন ভাবেই থামছে না তাদের কান্না ।

স্ত্রী খালেদা বেগম বলেন, সন্তানদের নিয়ে কিভাবে সংসার জীবন চালাবেন সে চিন্তায় অস্তির। দেখছেন ঘোর অন্ধকার।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 228 People

সম্পর্কিত পোস্ট