চট্টগ্রাম শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সর্বশেষ:

১২ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:২৪ পূর্বাহ্ণ

দক্ষিণ জেলা বিএনপির পরিচিতিমূলক সভায় শামীম

জনসমর্থনহীন সরকার এখন মানুষের ঘাড়ে চেপে বসেছে

বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম বলেছেন, মধ্যরাতের ভোট ডাকাতির নির্বাচনের পর বর্তমান সরকারের দুঃশাসনের মাত্রা যেন লাগামহীন হয়ে গেছে। সরকার দেশের প্রতিবাদী মানুষের রক্তে হাত রঞ্জিত করে দেশকে ভীতিকর অবস্থায় নিয়ে গেছে। এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে যাতে সরকারের অপকর্ম ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে কেউ লিখতে বা বলতে সাহস না পায়। জনসমর্থনহীন সরকার এখন মানুষের ঘাড়ে চেপে বসেছে। তারা জনগণের জানমালের নিরাপত্তাকে চরম হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে। আওয়ামীলীগ সরকারের দেশবিরোধী চুক্তির প্রতিবাদ করায় আবরার ফাহাদকে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা পৈশাচিক কায়দায় হত্যা করেছে। আমরা যেম এক মৃত্যু উপত্যকায় বসবাস করছি। এ অবস্থা চলতে দেয়া যায় না বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সকলকে অবিলম্বে ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে নেমে আন্দোলন বেগবান করতে হবে। তিনি গতকাল (শুক্রবার) বিকেলে নগরীর একটি কমিউনিটি হলে দক্ষিণ জেলা বিএনপির নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির প্রথম পরিচিতি সভায় এ কথা বলেন। সংগঠনের নবনির্বাচিত আহ্বায়ক আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ-সাংঠনিক সম্পাদক জালাল উদ্দিন মজুমদার, হারুনুর রশিদ।

সভাপতির বক্তব্যে নবনির্বাচিত আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান বলেন, শহীদ জিয়ার হাতেগড়া সংগঠন বিএনপি বাংলাদেশের মাটি ও মানুষের দল। বিএনপি নেতাকর্মীরা স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার অতন্দ্র প্রহরী। তাই বিএনপিকে বার বার এদেশের মানুষ ভোট দিয়ে ক্ষমতায় এনেছে। শীঘ্রই দলকে সুসংগঠিত করে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধার আন্দোলন বেগবান করা হবে উল্লে করে তিনি বলেন, মানুষের ভোটাধিকার ও বাকস্বাধীনতা ফিরিয়ে আনতে না পারলে বাংলাদেশের স্বাধীনতা হুমকির মুখে পড়বে।

পরিচিতি সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর বলেন, চট্টগ্রাম বন্দর ও মংলা বন্দরের ইজারা প্রদান ও গ্যাস রপ্তানি চুক্তি বাংলাদেশের মানুষ মেনে নেবে না। ভারতের সাথে সম্পাদিত সকল অসম চুক্তি অবিলম্বে বাতিল করতে হবে, অন্যথায় বাংলাদেশের জনগণ দেশবিরোধী চুক্তির বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবে। সদস্য সচিব মোস্তাক আহমেদ খানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের যুগ্ম আহবায়ক মো. আলী আব্বাছ, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, আহ্বায়ক কমিটির সিনিয়র সদস্য অধ্যাপক শেখ মো. মহিউদ্দিন, ইদ্রিস মিয়া চেয়ারম্যান, এডভোকেট দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, এডভোকেট ইফতেখার হোসেন চৌধুরী মহসিন, মোশারফ হোসেন, শহিদুল আলম বুলবুল, এম রহিম, নুরুল আনোয়ার, এডভোকেট মো. ফোরকান, বদরুল খায়ের চৌধুরী, এহসান এ খান, আসহাব উদ্দিন চৌধুরী, এম. মঞ্জুর উদ্দিন চৌধুরী, কামরুল ইসলাম হোসাইনী প্রমুখ।-বিজ্ঞপ্তি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 155 People

সম্পর্কিত পোস্ট