চট্টগ্রাম বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১০ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:৩৬ এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা অফিস

তোপের মুখে বুয়েট উপাচার্য

আবরার খুনের জেরে তৃতীয় দিনেও উত্তাল ক্যাম্পাস বুয়েটে শিক্ষক ও ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের প্রস্তাব

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ খুনের জেরে তৃতীয় দিনেও উত্তাল ছিল বুয়েট ক্যাম্পাস। বুয়েট থেকে হত্যাকারীদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার ও দ্রুত বিচার নিশ্চিত করাসহ ১০ দফা দাবিতে শিক্ষার্থীদের দুর্বার আন্দোলনে উত্তপ্ত বুয়েট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। দাবির সমর্থনে গতকাল বুধবার বুয়েটের শহীদ মিনারের সামনে অবস্থান নেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েও একই দাবিতে মাঠে নেমেছে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীরা। এই দাবিকে সামনে রেখে গতকাল বুধবারও বিক্ষোভ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে আন্দোলনকারীরা। এদিকে, গত রবিবার রাতের জঘন্য এ হত্যাকা-ের নিন্দায় দেশব্যাপী সাধারণ মানুষের মধ্যে ঝড় উঠেছে। শিক্ষক-রাজনীতিক, সাংবাদিক ও চিকিৎসকসহ সব শ্রেণি-পেশার মানুষ এ হত্যাকা-ে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। একইসঙ্গে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন শিক্ষার্থীরা। অবিলম্বে তারা এ হত্যাকা-ে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছেন। ১০ দফা দাবিতে গতকাল সকাল থেকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ শুরু করেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত সব ক্লাস-পরীক্ষা ও একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধের ঘোষণা দেন তারা। শিক্ষার্থীদের এ আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে অপরাধীদের শাস্তির দাবি জানান বুয়েটের বিভিন্ন ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরাও।

এদিকে বুয়েটে শিক্ষক ও ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। ছাত্র প্রতিনিধি এবং শিক্ষকদের আলোচনার ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বুধবার শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক কে এম মাসুদ আন্দোলনরত শিক্ষার্থী এবং গণমাধ্যমের সামনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক সমিতির এক জরুরি বৈঠকে বুয়েটে শিক্ষকদের রাজনীতি নিষিদ্ধ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়। একইসাথে, হত্যাকা-ের দায় কাঁধে নিয়ে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করা হয়েছে। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সামনে গতকাল এ তথ্য জানিয়েছেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. একেএম মাসুদ। তিনি বলেন, এই সিদ্ধান্ত হয়েছে সর্বসম্মতভাবে। গতকালের সভায় ৩০০ জনের মত শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন, সবাই এই প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছেন।
কেন তারা এই সিদ্ধান্ত নিলেন, জানতে চাইলে ড. মাসুদ বলেন, সাধারণ ছাত্রদের দাবির সাথে তারা একাত্মতা ঘোষণা করছেন। তিনি বলেন, ছাত্ররা ক্যাম্পাসে রাজনীতি বন্ধের দাবি করছেন, তাহলে শিক্ষকরা কেন রাজনীতি করবেন? ক্যাম্পাসে অপরাধের সাথে রাজনীতির সরাসরি কোনো সম্পর্ক না থাকলেও, রাজনৈতিক ছত্রছায়ার কারণে অনেক সময় প্রশাসন অপরাধ বিশৃঙ্খলার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পাওে না। তিনি যোগ করেন, এমন নয় যে রাজনৈতিক দলগুলো কাউকে মারধোর করতে বলেন, নির্যাতন করতে বলেন, কিন্তু সরাসরি রাজনীতির কারণে ক্যাম্পাসে পরিস্থিতি দিনে দিনে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। নোংরা পরিস্থিতির তৈরি হয়েছে।

জানা গেছে, হত্যাকা-ের প্রমাণ না রাখতে সিসিটিভি ফুটেজ মুছে (ডিলেট) দিয়েছিল খুনিরা। তবে পুলিশের আইসিটি বিশেষজ্ঞরা তা উদ্ধারে সক্ষম হন। পুলিশ ও চিকিৎসকরা আবরারকে পিটিয়ে হত্যার প্রমাণ পেয়েছেন। এ ঘটনায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে এ ঘটনায় ১৪ জন জড়িত বলে জানিয়েছেন ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ) কৃষ্ণপদ রায়।
বিক্ষোভের মুখে আবরারের বাড়ি ছাড়লেন বুয়েট উপাচার্য : নির্যাতনে নিহত বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের কবর জিয়ারত করতে কুষ্টিয়ার কুমারখালীর রায়ডাঙ্গায় আবরার ফাহাদের বাড়িতে যান বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম। তবে তিনি ওই বাড়িতে প্রবেশকালে এলাকার মানুষের বিক্ষোভের মুখে পড়েন। গতকাল বুধবার বিকেলে কুমারখালীর রায়ডাঙ্গায় আবরার বাড়িতে পৌঁছান ভিসি। কিন্তু বিক্ষোভের মুখে তিনি বাড়িতে প্রবেশ করতে পারেননি।পরে তিনি আবরার ফাহাদের দাদা আব্দুল গফুর ও পিতা বরকত উল্লাহর সাথে ফাহাদের কবরস্থানে যান। সেখানে কবর জিয়ারত করে দ্রুত তিনি স্থান ত্যাগ করেন।
স্থানীয় সূত্র জানায়, বুয়েট উপাচার্য রায়ডাঙ্গায় মাত্র ১৫ মিনিটের মতো অবস্থান করেন। পরে এলাকাবাসীর তোপের মুখে পড়ে তিনি দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন।

শেরে বাংলা হল প্রভোস্টের পদত্যাগ : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট মো. শাহিনুর ইসলাম পদত্যাগ করেছেন। গতকাল বুয়েটের শহীদ মিনারের পাশের রাস্তায় বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীদের মাঝে গিয়ে বুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি এ কে এম মাসুদ এ কথা জানান। এ সময় বুয়েটের অন্যান্য বিভাগের শিক্ষকরাও উপস্থিত ছিলেন।

আরও ৩ আসামি ৫ দিনের রিমান্ডে : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত আরও ৩ জনকে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আসামিরা হলেন- শামসুল আরেফিন রাফাত (২১), মনিরুজ্জামান মনির (২১) ও আকাশ হোসেন (২১)। গতকাল আদালতে হাজির করে তাদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন ডিবি পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে গত মঙ্গলবার একই মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ১০ জনের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানালে শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরী ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মোমবাতি জ্বালিয়ে আবরার হত্যার প্রতিবাদ : আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে ক্যাম্পাসে মোমবাতি প্রজ্বলন করে মৌন কর্মসূচি পালন করেছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীরা। গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে তাঁরা এই কর্মসূচি পালন করেন। প্রথমে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের পাদদেশে জড়ো হন। এরপর সেখানে মোমবাতি প্রজ্বলন করে তাঁরা পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করেন। পুনরায় তাঁরা শহীদ মিনারের পাদদেশে মিলিত হন এবং সেখানে প্রজ্বলিত মোমবাতি রেখে আবরারের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন।

The Post Viewed By: 368 People

সম্পর্কিত পোস্ট