চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

১০ অক্টোবর, ২০১৯ | ২:২০ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা হ নাজিরহাট

রাজমিস্ত্রী’র হেলপার থেকে দরবেশ ফকির!

ফটিকছড়িতে ভ- ফকিরকে গণধোলাই পুলিশে সোপর্দ

ফটিকছড়ি উপজেলার পাইন্দং ইউনিয়নের ভ- ফকির আবদুর শুক্কুরকে এক প্রবাসীর ঘর থেকে এলাকাবাসীরা আটক করে থানা পুলিশকে সোপর্দ করেছে। ফটিকছড়ি থানা পুলিশ খবর পেয়ে গতকাল (৯ অক্টোবর) সকালে উত্তর পাইন্দং বেড়াজালী থেকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। ধৃত শুক্কুর ওই ইউনিয়নের হাইদচকিয়া গ্রামের ফরেস্টার দোকান এলাকার

নুরুল আলমের সন্তান। জনপ্রতিনিধি, থানা ও স্থানীয় সূত্রে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে। জানাগেছে, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর ওই ভ- ফকিরকে স্থানীয়রা বেড়াজালী গ্রামের এক প্রবাসীর ঘরে প্রবেশ করতে দেখে। ওই ঘরে প্রবাসীর স্ত্রী তার তিন মেয়েকে নিয়ে বসবাস করেন। ভ- ফকির ওই ঘরেই রাত কাটায়। স্থানীয়রা ঘটনাটি নিশ্চিত হয়ে গতকাল (বুধবার) সকালে ঘর ঘেরাও করে ভ- ফকিরকে হালকা উত্তম-মাধ্যম দিয়ে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেয়।

বিভিন্ন সূত্র মতে, ওই আব্দুল শুক্কুর ছিল রাজমিস্ত্রী’র সহযোগী। অপর একটি সূত্রে জানাগেছে, সে দিনে রাজমিস্ত্রী’র কাজ ও রাতে মেয়ে সেজে বিভিন্ন বিয়ে অনুষ্ঠানে নাচতো। ওই কাজে তাকে ভাড়ায় নিয়ে যাওয়া হতো। রাজমিস্ত্রী’র কাজ ভাল না লাগা আর বিয়ে অনুষ্ঠানে নৃত্যের ব্যবসা মন্দ দেখে আব্দুল শুক্কুর আয়ের গতিপথ পরিবর্তন করে। মানুষের সরলতাকে কাজে লাগিয়ে সে আস্তে আস্তে বনে যায় আধ্যতিœক ফকির। এই সুযোগে সে বিভিন্ন তাবিজ. পানি পড়া. ঝাঁড়ফুক করে টাকা পয়সা হাতিয়ে নিতে শুরু করে। তার ভ-ামী চরমে পৌঁছলে স্থানীয়রা বিভিন্ন ভাবে এর প্রতিবাদ করে। তার বিরুদ্ধে স্থানীয়দের অনেক অভিযোগ রয়েছে। এহেন ভ-ামীর বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রেক্ষিতে পাইন্দং ইউপি চেয়ারম্যান সরোয়ার হোসেন স্বপন’ও ইউপি কার্যালয়ে ওই ভ- ফকিরের কয়েকবার বিচার করেছিল। এমনকি ভ-ামি করবে না বলে ওই ভ- মুচলেখা দিলেও তার ভ-ামী চলছে বহাল তবিয়তে।

জানতে চাইলে হাইদচকিয়ার মেম্বার মুহাম্মদ ইদ্রিস জানান, ওই ভ-’র কু-কীর্তির কথা বলে শেষ করা যাবে না। তার ভ- আসরে শুধু মেয়ে আর মেয়ে। মেয়েদের সাথে নাচছে এমন অনেক ছবিও বিভিন্ন ভাবে প্রকাশ হয়েছে।

এ ব্যাপারে বেড়াজালি এলাকার পাইন্দং ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন জানান, ভ- শুক্কুর ফকির মঙ্গলবার রাতে প্রবাসীর এক ঘরে রাত কাটানো খবর পেয়ে গতকাল বুধবার সকালে এলাকার জনগণ তাকে এ ঘর থেকে আটক করে। পরে, উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে থানার ওসি’কে খবর দেওয়া হলে পুলিশ ওই ভ-কে আটক করে নিয়ে যায়।

পাইন্দং ইউপি চেয়ারম্যান সরোয়ার হোসেন স্বপন বলেন, সে একজন ভ- ফকির। তার কয়েকবার বিচার করেছি। ভাল হবার মুচলেখা দিলেও সে তার গতিপথ পরিবর্তন করেনি। তিনি ওই ভ- ফকিরের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন।

ফটিকছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ বাবুল আক্তার জানান, স্থানীয়রা ওই ব্যক্তিকে এক প্রবাসীর ঘর থেকে আটক করে পুলিশ’কে খবর দেয়। তাকে পুলিশ পাঠিয়ে থানায় নিয়ে আসা হয়। আজ বৃহস্পতিবার তাকে কোর্টে চালান দেওয়া হবে তিনি জানিয়েছেন।

The Post Viewed By: 215 People

সম্পর্কিত পোস্ট