চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

১০ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:৫৪ পূর্বাহ্ন

সাতকানিয়ায় নির্বাচনী প্রচারণায় আবু সুফিয়ান

নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় একটি প্রতিবাদী ভোট দিন

দক্ষিণ জেলা বিএনপির নবনির্বাচিত আহবায়ক আবু সুফিয়ান বলেছেন, আওয়ামলীগ ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যরাতের মহাডাকাতির ভোটের মাধ্যমে দেশের মানুষের ভোটাধিকার হরণ করেছে। তারা দেশের নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। তাই আগামী ১৪ অক্টোবর সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচনে মানুষের নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সবাইকে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে একটি প্রতিবাদী ভোট দিতে হবে। এই ভোট হবে আ. লীগের দু:শাসনের বিরুদ্ধে ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির সমর্থন জানানোর ভোট। ভোটের দিন যাতে কোন সন্ত্রাসী ও অপশক্তি নাগরিক অধিকার হরণ করতে না পারে সেজন্য সকলকে সচেতন থাকতে হবে। যদি ১৪ অক্টোবর সাতকানিয়ায় ৩০ ডিসেম্বরের মত নির্বাচন করা হয় তাহলে সে নির্বাচন চট্টগ্রামবাসী মেনে নেবে না। এর বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। তিনি গতকাল বুধবার সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত ধানের শীষের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী বশির আহমেদের সমর্থনে কেরাণীহাটে এক পথ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীদের নিয়ে দুপুর থেকে গণসংযোগ শুরু করে কাঞ্চনা ফুলতলা বাজার, জোট পুকুরীয়া বাজার, দেওদীঘি, সোনাকানিয়া, মৌলভীর দোকান, মাস্টারহাট, কালিয়াইশ, বাজালিয়া হয়ে কেরাণীহাট মোড়ে এসে পথসভায় যোগ দেন।

এতে আবু সুফিয়ান আরো বলেন, ভিন্নমতের কারণে বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরারকে পৈশাচিক কায়দায় হত্যা করে আইনের শাসনের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে ছাত্রলীগ। এটা মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের শামিল। সরকারের এক কেন্দ্রীক শাসন ব্যবস্থা দেশকে চূড়ান্ত ফ্যাসিবাদের দিকে নিয়ে গেছে। তিনি উপজেলা নির্বাচনে ধানের শীষের প্রার্থীদের বিজয়ী করে আওয়ামী দু:শাসনের জবাব দেয়ার আহবান জানান।

সাতকানিয়া উপজেলা সভাপতি অধ্যাপক শেখ মো. মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমানের পরিচালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আলী আব্বাস, মোস্তাক আহমেদ খান, আনোয়ার হোসেন লিপু, বদরুল খায়ের চৌধুরী, হাজী মো. রফিক, নবাব মিয়া, জসিম উদ্দিন আবদুল্লা, মোস্তাফিজুর রহমান, অধ্যাপক এহসান মওলা, এস এম গিয়াস উদ্দিন, শরীফুল আলম, গিয়াস উদ্দিন ভূঁইয়া, শেফায়েত উল্লাহ চক্ষু, মোজাম্মেল হক, শহীদুল আলম শহীদ, মো. মহসিন, জান্নাতুল নাঈম রিকু, ফরিদা ইয়াসমিন মুন্নি, এম এ রহিম, মো. হাসান, আবু তালেব, মিন্টু, মো. আরিফ প্রমুখ।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 74 People

সম্পর্কিত পোস্ট