চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯

১০ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:১৮ পূর্বাহ্ণ

জাহেদুল আলম, রাউজান

দুর্ভোগ বছরের পর বছর পূর্ব গুজরায়

মীরদের জোরাখালের ওপর পাকা ব্রিজ দাবি

রাউজান কষ্ট চারশ পরিবারের শত শত শিক্ষার্থী ও মুসল্লীদের

রাউজানের পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে রওশন তালুকদার বাড়ি ও সৈয়দ বাড়ি জামে মসজিদ অবস্থিত। এ মসজিদের সড়কের মীরদের জোরাখালের ওপর একটি পাকা ব্রিজের অভাব রয়েছে। এ কারণে প্রায় চারশ পরিবারের দেড় হাজার মানুষ বছরের পর বছর দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। বর্তমানে এলাকার স্কুল, কলেজ, মাদরাসার প্রায় দুই-আড়াইশ শিক্ষার্থীসহ শত শত নারী-পুরুষকে বাঁশের সাঁকো দিয়ে বাধ্য হয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে। ওই সাঁকোটির ওপর একটি পাকা ব্রিজ করার জন্য স্থানীয় জনসাধারণ দীর্ঘ বেশ কয়েকবছর ধরে দাবি জানিয়ে আসলেও এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মহল উদাসীন বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, বর্তমানে ওই সাঁকো দিয়ে অলিমিয়া হাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মধ্যম আধার মানিক উচ্চ বিদ্যালয়, আধার মানিক ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসাসহ বিভিন্ন স্কুল মাদরাসা, রওশন তালুকদার বাড়ি, ফুলের বাপের বাড়ি, আলী বাপের বাড়ি, লাল মিয়া মিস্ত্রির বাড়ি, মানির বাপের বাড়ির মানুষ এবং সৈয়দ বাড়ি জামে মসজিদের মুসল্লীদের যাতায়াত করতে হয়। এলাকাবাসী জানায়, সাঁকোটির কারণে ৭-৮শ মানুষকে এক কিলোমিটার পথ ঘুরে নির্দিষ্ট গন্তব্যে যাতায়ত করতে হয়। অথচ সাঁকোটির স্থলে ব্রিজ নির্মাণ হলে যাতায়াতে অর্ধেক সময় ও আধা কিলোমিটার পথ সাশ্রয় হতো। কিন্তু মসজিদে যেতে হলে সাঁকোটি ছাড়া অন্য কোন বিকল্প পথ নেই। এলাকার লোকজন জানান, বর্তমানে খালটির ওপর দিয়ে যে সাঁকো রয়েছে, সেটি দিয়ে পারাপারের স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা খালের মধ্যে পড়ে আহত হয়েছে। বৃদ্ধরাও নামাজ পড়তে মসজিদে যেতে না পেরে ঘরে নামাজ আদায় করেন। বর্ষায় বৃষ্টিপাতের সময় এলাকাবাসীর দুর্ভোগ আরো বেড়ে যায়।

এলাকার বাসিন্দা শাহা আলম, আশরাফ জামান, জানে আলমসহ অনেকে রওশন তালুকদার বাড়ি ও সৈয়দ বাড়ি জামে মসজিদ সড়কের মীরদের জোরা খালের ওপর পাকা ব্রিজের নির্মাণের জন্য স্থানীয় এমপি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে দাবি জানিয়েছেন।

The Post Viewed By: 82 People

সম্পর্কিত পোস্ট