চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১০ অক্টোবর, ২০১৯ | ১২:৪৫ এএম

ক্যাবের ওরিয়েন্টেশন সভায় বক্তারা

পাড়া-মহল্লাকে তামাক ও ভেজাল খাদ্যমুক্ত এলাকা ঘোষণায় আহ্বান

‘কিছু অসাধু লোকের কারনে সমাজ নষ্ঠ হয় না, সমাজ নষ্ঠ হয় ভালো মানুষের নিরবতায়’ এই স্লোগানের মতোই খাদ্য ভেজাল হোক, মাদক, ধূমপান, ইভটিজিং এ ভরপুর হলেও একশ্রেণির মানুষ বলে থাকেন, আমি ভাল আছি, আমি সেখানে নাই এবং আমার সন্তান বিদেশে পড়ে। আর তাদের নিজে ভাল থাকার মতো আত্মতুষ্ঠির কারণে আজ আমাদের ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা। সমাজ ক্রমাগত অনিরাপদ ও বসবাস অনুপযোগী হয়ে উঠছে। আর ভোক্তারা অসংগঠিত ও অসচেতন থাকার কারণে জীবন ও জীবিকার সাথে সম্পর্কযুক্ত অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা, চিকিৎসার অধিকার ভোগে প্রতিনিয়তই হয়রানি, প্রতারণা ও ঠকতে বাধ্য হতে হচ্ছেন। ক্যাবসহ নানা প্রতিষ্ঠানের নানামুখী প্রচারণা ও সরকারি অনেক উদ্যোগ সত্বেও জনগণের কাছে এ তথ্য পৌঁছানো যাচ্ছে না।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১০০ গজের মধ্যে ধূমপান নিষিদ্ধে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলেও তার সুফল এখনও আসেনি। তাই পাড়া-মহল্লাকে তামাক ও ভেজাল খাদ্যমুক্ত এলাকা ঘোষণায় তৃণমূল পর্যায়ে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলা ছাড়া বিকল্প নাই বলে মত প্রকাশ করেছেন। নতুবা এর পরিণতি কাউকে রেহাই দিবে না।

গত মঙ্গলবার নগরীর হামজারবাগ অর্নিবান ক্লাব মিলনায়তনে ক্যাব ৭নং পশ্চিম ষোল শহর ওয়ার্ড কমিটির ওরিয়েন্টেশনে বক্তারা উপরোক্ত মন্তব্য করেন। ক্যাম্পেইন ফর টোবাকো ফ্রি কিডস’র সহায়তায় পিপলস জুবিল্যান্ট এনগেজমেন্ট ফর টোবাকো ফ্রি চিটাগাং সিটি প্রকল্প, ক্যাব চট্টগ্রামের আয়োজনে ওরিয়েন্টেশনে সভাপতিত্ব করেন এবিএম হুমায়ুন কবির। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ড. মাহফুজ পারভেজ, মুখ্য আলোচক ছিলেন এস এম নাজের হোসাইন। মহিন উদ্দীনের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন আনোয়ারুল ইসলাম বাপ্পি, সাহেদুল ইসলাম চৌধুরী সুজন, সেলিম জাহাঙ্গীর, জানে আলম, আবু ইউনুচ, ইসমাইল ফারুকী, ক্যাব ডিপিও জহুরুল ইসলাম প্রমুখ।

ওরিয়েন্টেশনে বলা হয় সরকার আগামি ২০৪০ সালের মধ্যে দেশে তামাক নির্মূলে উদ্যোগ নিয়েছে। তামাকের বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ হলেও প্রকাশ্যে বিড়ি-সিগারেট, পান জর্দার বিজ্ঞাপন ও বিক্রি বন্ধ হচ্ছে না।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 36 People

সম্পর্কিত পোস্ট