চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১০ অক্টোবর, ২০১৯ | ১২:৩৭ এএম

বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

‘জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই’

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ইলেক্ট্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদে নগরীতে বিভিন্ন সংগঠন মানববন্ধন, সমাবেশ, বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। এসময় বক্তারা নিহতের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং আবরার হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান। বক্তারা বলেন, এ ঘটনায় হত্যাকারীরা ছাত্ররাজনীতির নামে কর্তৃত্ববাদী আচরণের ভূমিকা নিয়ে মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। আবরার হত্যার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করে লেখাপড়ার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হবে। না হয় নতুন প্রজন্ম একটি অনিরাপদ ভবিষ্যতের দিকে ধাবিত হবে বলে।

চট্টগ্রাম লেডিস ক্লাব: আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম লেডিস ক্লাবের উদ্যোগে গতকাল বুধবার দেশের সব মায়েদের পক্ষে মৌন প্রতিবাদ ও মানববন্ধন পালন করা হয়। ক্লাবের সহ-সভানেত্রী সাবিহা মুসার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে এই হত্যাকা-ের তীব্র নিন্দা জানানো হয় এবং নিহত আবরার ফাহাদের রূহের মাগফিরাত কামনা করা হয়। সেই সাথে নেতৃবৃন্দ শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। মানববন্ধন থেকে নেতৃবৃন্দ আবরার হত্যাকা-ের দ্রুত বিচারের দাবি জানিয়ে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার আহ্বান জানান। তারা বলেন, আগামীতে যেন আর কোন মায়ের সন্তানকে এভাবে মৃত্যুবরণ করতে না হয় সেই নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন। বিশেষ করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করে লেখাপড়ার পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন ক্লাবের সাবেক সভানেত্রী জিনাত আজম, সম্পাদিকা বোরহানা কবির, সহ-সম্পাদিকা মিনু আলম, আক্তার বানু ফ্যান্সি, সৈয়দা শামীম কাদের সুরমা, ডা. হাফসা সালেহ, রোকেয়া আকতার বারী, রুহি মোস্তফা, রোকেয়া চৌধুরী, সাকেরা সাদেক, রওশন আক্তার, সামশুন নাহার, নাজমা সাইদা বেগম, আফরোজা বুলবুল তাহের, লায়লা ইব্রাহিম বানু, মুনিরা হুসনা, নাছিমা শওকত, জাহানারা বেগম, সালাম সাদেক, রোকেয়া আহমেদ, অধ্যাপিকা আলেয়া চৌধুরী প্রমুখ।

ছাত্র ইউনিয়ন: বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদে ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা সংসদ কর্তৃক প্রতিবাদ সভা গতকাল নিউমার্কেট মোড়ে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের জেলা সভাপতি এ্যানি সেনের সভাপতিত্বে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরান চৌধুরীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার রাফি, নিশান রায়, সাইফুল ইসলাম, সাইফুর রহমান খান প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, আবরার সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ-ভারত পানি বিষয়ক চুক্তি এবং গ্যাস রপ্তানির চুক্তি নিয়ে সমালোচনা করেছিল। এজন্য তাঁকে মেরে ফেলা হলো! এ ঘটনায় হত্যাকারীরা ছাত্ররাজনীতির নামে কর্তৃত্ববাদী আচরণের ভূমিকা নিয়ে মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে যার সর্বশেষ পরিণতি ছিল আবরারকে হত্যা করা। এর আগেও ভিন্ন মতের জন্য ছাত্রলীগ নামধারী সন্ত্রাসীদের হাতে প্রাণ দিতে হয়েছে অনেক শিক্ষার্থীকে। ক্যাম্পাসগুলো আজ মিনি ক্যান্টনমেন্টে পরিণত হয়েছে। এভাবে দমন নিপীড়ন করে কোন প্রতিক্রিয়াশীল ও গণবিরোধী গোষ্ঠী টিকে থাকতে পারেনা। তারা আবরার হত্যার সাথে জড়িতদের সর্বোচ্চ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি এবং শিক্ষাঙ্গনে সন্ত্রাসমুক্ত ছাত্ররাজনীতির পরিবেশ তৈরির আহ্বান জানান। সমাবেশ শেষে একটি মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সংগঠন কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

দক্ষিণ জেলা ছাত্রদল: বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদের ছাত্রলীগ কর্তৃক হত্যার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শহিদুল আলম শহীদের নেতৃত্বে বৃহত্তর চট্টগ্রামের প্রবেশদ্বার নতুন ব্রিজ এলাকায় প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সভাপতির বক্তব্যে মোহাম্মদ শহিদুল আলম শহিদ বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জেল হাজতে আটকে রেখে দেশ বিরোধী একের পর এক চুক্তি করে নিশিরাতের সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে চাই। তারই ধারাবাহিকতায় সরকারের মদদপুষ্ট ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ একের পর এক হত্যাকা- চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা আবরার হত্যার সুষ্ঠু বিচার চাই। আবরার হত্যার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন। এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, নুরুল কবির রানা, আফসারুল্লাহ, সাদ্দাম হোসেন, এম নুরুল আক্কাস, জালাল উদ্দিন, মোহাম্মদ শামীম, মো. ইব্রাহিম, মো. হোসেন, লোকমান উদ্দিন, মো. মুসা, হাসান, সাইফুদ্দিন দস্তগীর, আব্দুল জলিল, মো. মোরশেদ, নুর শাহেদ খাঁন রিপন, এনামুল হক, জসিম উদ্দিন, এনামুল হক, গাজী রিফাত, শাহরিয়ার রাকিব, আব্দুর রহমান, ইলিয়াস হায়দার প্রমুখ।

মহানগর ছাত্রদল: বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে ছাত্রলীগ কর্তৃক হত্যার প্রতিবাদে গতকাল ৯ অক্টোবর মহানগর ছাত্রদল নেতা সামিয়াত আমিন চৌধুরী জিসানের নেতৃত্বে নগরীর প্রবর্তক এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে মহানগর ছাত্রদল। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি জানান। এসময় মহানগরীর আওতাধীন বিভিন্ন থানা, কলেজ ও ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। এসময বক্তারা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বাংলাদেশের হারানো গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা এবং বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদসহ ছাত্রলীগের হাতে বিভিন্ন ক্যাম্পাসে হত্যাকা-ের শিকার সকল শিক্ষার্থীর হত্যার বিচার নিশ্চিত করার দাবি জানান। না হয় নতুন প্রজন্ম একটি অনিরাপদ ভবিষ্যতের দিকে ধাবিত হবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। বক্তারা বলেন, ছাত্রলীগের সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের কারণে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আজ সন্ত্রাসীদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। ছাত্রলীগের হাতে নৃশংসভাবে হত্যার শিকার অসংখ্য ছাত্রনেতা। সে সকল হত্যাকা-ের যথাযথ বিচার নিশ্চিত না হওয়ার পরিণাম হচ্ছে আজকের আবরার ফাহাদ।
নগর ছাত্রদল: মহানগর ছাত্রদল নেতা জাফরুল ইসলাম রানার সভাপতিত্বে এবং আলিফ উদ্দিন রুবেলের সঞ্চালনায় বিক্ষোভ মিছিল চটেশ্বরী রোড হতে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রবর্তক মোড়ে গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন সাইফুল আলম স্বপন, ইফতেখার উদ্দিন নিবলু, শাহীন হায়াত প্রমুখ।

চান্দগাঁও ছাত্রদল: চান্দগাঁও ছাত্রদলের উদ্যোগে বহদ্দারহাট বাস টার্মিনাল সংলগ্ন স্বাধীনতা কমপ্লেক্সের সামনে প্রতিবাদ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নগর ছাত্রদল নেতা শহীদুজ্জামান, ৫নং মোহরা ওয়ার্ড ছাত্রদলের সা. সম্পাদক মোহাম্মদ মনসুর, পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ড ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুর রশিদ, শহীদুল ইসলাম ছোটন, আনিসুর রহমান ইমন, বশিরুল্লাহ, হান্নান রহিম, আবদুর কাদের, আবদুল আজিজ, কায়সার, রায়হান সিদ্দিকী, রবিউল হোসেন রবি, শাহজাহান বকতেয়ার, ফারজানুল ইসলাম ইমন, মো. পারভেজ, মামুনুর রহমান ইমরান, মোহাম্মদ জসিম, আবদুল্লা আল মামুন, মো. কায়েস, মো. আরমান, মো. রিয়াজ, মোহাম্মদ নোমান প্রমুখ।

The Post Viewed By: 59 People

সম্পর্কিত পোস্ট