চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৯ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:১৫ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩৮ নম্বর দক্ষিণ মধ্যম

ফুটপাত-সড়ক দুটোই হকারের

নগরীর দক্ষিণ মধ্যম হালিশহর ৩৮ নং ওয়ার্ডের ব্যারিস্টার কলেজের বিপরীতে চলাচলের পথে দোকান বসিয়ে চাঁদা আদায় করছে একটি চক্র। ফুটপাতটি দখলে নিয়ে বসিয়েছে অর্ধশত স্থায়ী দোকান। শুধু ফুটপাত নয়, মূল সড়কটির একপাশ দখলে নিয়ে সেখানেও ভ্যানগাড়ি বসিয়ে চাঁদা আদায় করছে চক্রটি। এতে করে বাধ্য হয়ে ব্যস্ত সড়কের পাশ ধরেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে পথচারীদের। অভিযোগ রয়েছে, ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী নেতাদের নাম ভাঙিয়ে ফুটপাতটি দখলে নিয়ে সেখান থেকে চাঁদা আদায় করছে চক্রটি। যেখান থেকে মাসিক মাসোয়ারা নেন সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের ক্যাশিয়ার।
সরেজমিনে দেখা যায়, বিমান বন্দর সড়কটির ব্যারিস্টার কলেজের বিপরীতে চলাচলের ফুটপাতটি দখল করে সেখানে বসেছে অর্ধশত দোকান। এমনকি প্রধান সড়কটির একপাশে বসেছে সারি সারি ভ্যানগাড়ি। রাস্তা ও ফুটপাত দখল হয়ে যাওয়ায় এখানে প্রায়শই যানজট লেগে থাকে। চলাচলের পথ না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ব্যস্ত সড়কের মাঝেই হাঁটতে হচ্ছে পথচারীদের।
রাজীব হালদার নামে এক পথচারী জানান, ইপিজেডের খুব কাছে হওয়ায় প্রতিদিন এই রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করে হাজারো শ্রমিক। কিন্তু পথচারীদের হাঁটার জন্য এখানে যে ফুটপাত রয়েছে তা আমরা কখনো ব্যবহার করতে পারেনি। বছরের পর বছর ধরে ফুটপাতটি দখলে নিয়ে মানুষকে জিম্মি করে রেখেছে একটি চক্র। আমরা বাধ্য হয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত মাঝ সড়ক দিয়ে চলাচল করছি। এতে প্রায়ই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারাতে হচ্ছে আমাদের।
কয়েকবার উচ্ছেদ করার পরেও স্থায়ীভাবে এসব হকারদের সরানো যাচ্ছে না বলে জানান ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মো. চৌধুরী। তিনি পূর্বকোণকে বলেন, ‘ফুটপাতটি দিয়ে প্রতিদিন হাজারো শ্রমিক ও সাধারণ পথচারী চলাচল করে। তাই এটি দখলদারদের হাত থেকে উদ্ধার করতে আমি একাধিকবার উচ্ছেদ অভিযান চালাই। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হচ্ছে না। উচ্ছেদ করে চলে যাওয়ার কয়েকদিন পর তারা আবার দখলে নামছে। গত কয়েকদিন আগেও ফুটপাতটি দখলমুক্ত করতে সিটি কর্পোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেটকে আমি চিঠি দিয়েছি। খুব শীঘ্রই আমরা এখানে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করবো’।
দোকানগুলো দ্রুত সরিয়ে নিতে অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছেন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকান্ত চক্রবর্তী। তিনি বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত তাদের সড়ক থেকে উচ্ছেদ করতে অভিযান পরিচালনা করি। আবারও করা হবে’।

The Post Viewed By: 105 People

সম্পর্কিত পোস্ট