চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

৯ অক্টোবর, ২০১৯ | ১:১৬ পূর্বাহ্ন

মহানগর আহলে সুন্নাত ওয়াল জমাআতের কাউন্সিলে বক্তারা

সুশাসনের ঘাটতিতে নৈরাজ্য অসহনীয় পর্যায়ে পৌঁছে

দুর্নীতির ভয়াবহ বিস্তার, যুব সমাজের মাঝে বিরাজিত অবক্ষয়-অনৈতিকতার প্রাবল্য এবং ক্যাসিনো-জুয়ার রমরমা অবস্থাকে দেশে সুশাসনের অভাব ও মানবিক মূল্যবোধের ঘাটতিকে দায়ী করেছেন উলামা মাশায়েখ নেতৃবৃন্দ। সকল পর্যায়ের শিক্ষাঙ্গনে আদর্শ ও নৈতিক শিক্ষা বাধ্যতামূলক করে সামাজিক ও মানবিক মূল্যবোধে উজ্জীবিত প্রজন্ম গড়ে তোলার আহ্বান জানানো হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ মিলনায়তনে আহলে সুন্নাত ওয়াল জমাআত মহানগর শাখার দ্বি-বার্ষিক কাউন্সিলে উলামা মাশায়েখ নেতৃবৃন্দ একথা বলেন।
কাউন্সিলরদের সর্বসম্মতিক্রমে আল্লামা নুর মোহাম্মদ আলকাদেরীকে সভাপতি, অধ্যক্ষ আল্লামা জামেউল আখতার আশরাফীকে সাধারণ সম্পাদক, মাওলানা আবদুন নবী আলকাদেরীকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ১৫১ সদস্য বিশিষ্ট মহানগর আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের নতুন কমিটি গঠন করা হয়।
শাহ্ নূর মোহাম্মদ আলকাদেরীর সভাপতিত্বে ও অধ্যক্ষ জামেউল আখতার আশরাফির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে প্রধান অতিথি ছিলেন হাফেজ সোলাইমান আনসারী। উদ্বোধন করেন আনজুমান রিসার্চ সেন্টারের মহাপরিচালক গবেষক এম.এ মান্নান। মুখ্য আলোচক ছিলেন কাজী মঈন উদ্দিন আশরাফি।
প্রধান অতিথি বলেন, এভাবে ভয়াবহ নৈতিক অবক্ষয়গ্রস্ততার মধ্যে একটি দেশ চলতে পারে না। দেশ ও জাতির আশা ভরসার প্রতীক যুব সমাজের এই অধ:গামিতা দেখে আলেম সমাজ আর নিশ্চুপ থাকতে পারে না। আলেম সমাজকে আজ দিশারীর ভূমিকা পালন করে যেতে হবে। দেশ ও সমাজ থেকে অনাচার-দুর্নীতি-অবক্ষয়ের শেকড় উপড়ে ফেলতে হক্কানি আলেম সমাজকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান তিনি।
উদ্বোধক বলেন, মাদক-জুয়া-ক্যাসিনো যুব সমাজকে সীমাহীন বিপথগামীতার দিকে ঠেলে দিয়েছে। এই সর্বনাশা জাতীয় ব্যাধি থেকে দেশবাসী আজ পরিত্রাণ চায়।
সভাপতি বলেন, নৈতিক শিক্ষার অভাবই মানবিক ও সামাজিক অবক্ষয়ের মূল কারণ। সকল পর্যায়ের শিক্ষা ব্যবস্থাকে এমনভাবে ঢেলে সাজাতে হবে যাতে নৈতিকভাবে উজ্জীবিত প্রজন্ম গড়ে ওঠে। আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের এই প্লাটফরমে সুন্নি ওলামা ছাত্র জনতা আজ ঐক্যবদ্ধ।
অনুষ্ঠানে অতিথি ও আলোচক ছিলেন মুফতি কাজী আবদুল ওয়াজেদ, অধ্যক্ষ আল্লামা হারুনুর রশিদ, উপাধ্যক্ষ আল্লামা ড. লিয়াকত আলী, আল্লামা হাফেজ আশরাফুজ্জামান আলকাদেরী, উপাধ্যক্ষ আল্লামা জুলফিকার আলী চৌধুরী, এডভোকেট জাহাঙ্গির আলম চৌধুরী, অধ্যক্ষ আল্লামা বদিউল আলম রিজভী, অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল ইসলাম জেহাদি, উপাধ্যক্ষ আল্লামা আবদুল আজিজ আনোয়ারী, অধ্যক্ষ আল্লামা আবুল কালাম আমিরী, উপাধ্যক্ষ আল্লামা জালাল উদ্দিন ফারুকী, আল্লামা সৈয়দ ইউনুচ রজভী, অধ্যক্ষ মাওলানা রিদুয়ানুল হক হক্কানি, ড. মুহাম্মদ মতিউল ইসলাম, আল্লামা গোলাম মোস্তফা মোহাম্মদ নুরুন্নবী, মাজহারুল ইসলাম নেজামী, নুরুল আবছার কাদেরী, অধ্যাপক অহিদুল আলম, রাজনীতিবিদ মুহাম্মদ নঈমুল ইসলাম, আল্লামা আহমদুল্লাহ ফোরকান খান কাদেরী, নাছির উদ্দিন মাহমুদ, মাওলানা আশরাফ হোসাইন, মাওলানা জহুরুল আনোয়ার, অধ্যাপক মাওলানা জিয়াউল হক রিজভী, মাস্টার আবুল হোসেন, মাওলানা হারুনুর রশীদ চৌধুরী, মাওলানা গিয়াস উদ্দিন নেজামী, মাওলানা সোহাইল উদ্দিন আনসারী, সৈয়দ মুহাম্মদ আবু আজম, মুহাম্মদ হাবিবুল মোস্তফা সিদ্দিকী, জসিম উদ্দীন মাহমুদ, প্রমুখ।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 181 People

সম্পর্কিত পোস্ট