চট্টগ্রাম শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:১২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

আইয়ুব বাচ্চুর ‘রুপালি গিটার’ আজ উন্মোচন

‘এই রুপালি গিটার ফেলে একদিন চলে যাবো দূরে বহুদূরে’ গানটিকে উপজীব্য করে কিংবদন্তী শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে প্রবর্তক মোড়ে সৌন্দর্যবর্ধন ও গিটার স্থাপন করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক)। বাচ্চুর মৃত্যুবার্ষিকীর এক মাস আগে আজ বুধবার সন্ধ্যায় গিটারটি উন্মোচন করবেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। ১৮ ফুট উঁচু গিটারটি চমকে দিচ্ছে যাত্রী-পথচারীদের। স্টিলের তৈরি বিশাল গিটারটি সূর্যের আলোতে চিক চিক করছে। রাতের আঁধারে দূর থেকে আসা গাড়ির হেডলাইটও অপরূপ প্রতিবিম্বিত হচ্ছে। আবার যখন ফোয়ারার জল আছড়ে পড়ে গিটারে তখন শোকের আবহ ছড়িয়ে পড়ে। সাড়ে চার ফুট বেদীর ওপর গিটার বসানোর পর থেকে কালো চাদরে ঢেকে রাখা হলেও সোমবার তা খুলে ফেলা হয়। ফিনিশিংয়ের কিছু কাজ সম্পন্ন করার জন্যই দায়িত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠানটি গিটারটি উন্মুক্ত করে দেয়। এরপর গিটারকে ঘিরে বাচ্চু ভক্তদের আনাগোনা শুরু হয়। কেউ গিটারের ছবি তুলে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন। কেউ আবার গিটারকে ফ্রেমে এনে তোলেন সেলফি। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন ব্যস্ত শেষমুহূর্তের কাজে।

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আইয়ুব বাচ্চু শুধু আমাদের গর্ব নন, তিনি তরুণদের অফুরান প্রেরণার উৎস। গিটার বসানোর মধ্য দিয়ে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তাকে তুলে ধরতে চাই যেন তরুণরা দেশের জন্য, সমাজের জন্য ভূমিকা রাখতে উদ্বুদ্ধ হয়।

চসিকের প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ একেএম রেজাউল করিম জানান, গোলপাহাড় মোড় থেকে প্রবর্তকের দিকে যাওয়ার সময় গিটারটির সামনের অংশ চোখে পড়বে। এ ছাড়া চারপাশ থেকে গিটার ও বর্ণিল আলোর ফোয়ারার সৌন্দর্য নজর কাড়বে সবার। স্টিলের পাতে তৈরি গিটারটিতে ৬টি তার রয়েছে। যেগুলো আমি বাজিয়ে দেখেছি টুং টাং শব্দ হয়।

সূত্র জানায় নগরের সৌন্দর্যবর্ধনের অংশ হিসেবে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে প্রায় ৩ কোটি টাকায় প্রবর্তক মোড় ও আশপাশের এলাকার কাজটি করছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আর্ডিওস ইংক ও স্ক্রিপ্ট। এ কাজের মধ্যে থাকবে রোড বিউটিফিকেশন, ওয়াকওয়ে নির্মাণ, দেয়ালে মুরাল, সবুজায়ন ইত্যাদি। ইতোমধ্যে বেশ কিছু সম্পন্ন করেছে চুক্তিবদ্ধ দুই প্রতিষ্ঠান।

২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর ঢাকায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এলআরবির লিড গিটারিস্ট ও ভোকাল আইয়ুব বাচ্চু। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে পুরো দেশে। ২০ অক্টোবর নগরীর জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ মাঠে নামাজে জানাজাশেষে স্টেশন রোডের নগর বাইশ মহল্লা চৈতন্য গলি কবরস্থানে মায়ের কবরের পাশে দাফন করা হয় এ কিংবদন্তীকে।

The Post Viewed By: 322 People

সম্পর্কিত পোস্ট