চট্টগ্রাম বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:১৩ এএম

নিজস্ব সংবাদদাতা হ ফটিকছড়ি

ফেসবুকে স্ট্যাটাস নিয়ে মারামারি

ফটিকছড়িতে ছাত্রলীগের দু’পক্ষ ক্ষোভে ফুঁসছে ফের সংঘর্ষের শংকা

ফটিকছড়িতে ফেসবুকে এক ছাত্রলীগ নেতার স্ট্যাটাস নিয়ে মারামারির ঘটনায় উভয়পক্ষে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ক্ষোভে ফুসছে দু’পক্ষই। এতে যেকোন সময় উভয়পক্ষে পুনরায় সংঘর্ষের আশংকা করছেন ফটিকছড়ির সচেতন মানুষ। গত ১৬ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনূর্ধ ১৭ এর ফাইনাল খেলা শেষে ফেরার পথে ইতোপূর্বে ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’পক্ষে মারা মারিতে ৫ ছাত্রলীগ নেতাকর্মী আহত হয়। ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, নাজিরহাট পৌর ছাত্রলীগের সদস্য রনি কিছুদিন আগে ফটিকছড়ি পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদকে উদ্দেশ্য করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেটি নিয়ে উভয়ের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। রনি গত ১৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে ফটিকছড়ি কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের খেলা দেখে ফেরার পথে ওই স্ট্যাটাসের জের ধরে সাজ্জাদের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ তার উপর হামলা করে তাকে এবং তার সাথে থাকা সহপাঠীদের মারধর করে বলে জানান রনি। এ ঘটনার প্রতিবাদে উক্তদিন সন্ধ্যা ৭টায় রনির সাথে থাকা ছাত্রলীগ কর্মীরা ফটিকছড়ি পৌর সদর বিবিরহাট বাজারে একটি প্রতিবাদ মিছিল বের করে। মিছিলটি ফটিকছড়ি কলেজ গেট এলাকায় এলে প্রতিপক্ষরা পূনরায় লোহার রড. হকিস্টিক,

কিরিচ নিয়ে হামলা করে বলে অভিযোগ করেন রনি। এ ঘটনায় নাজিরহাট পৌরসভাধীন পূর্ব ফরহাদাবাদ গ্রামের মো. ইদ্রিচের ছেলে নাইম (২১), একই গ্রামের আলী আজমের ছেলে রাহাত (২০) ও নাছির উদ্দিনের ছেলে রনি (২১) সহ অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে। আহতরা প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়ে বর্তমানে পারিবারিকভাবে চিকিৎসায় আছেন।

অপরদিকে এ ব্যাপারে ফটিকছড়ি কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জিকু চৌধুরী বলেন, নাজিরহাট পৌরসভা ছাত্রলীগের কতিপয় কর্মী ফটিকছড়ি সদরে এসে তাদের বিরুদ্ধে মিছিল দিচ্ছিল। তারা কাউকে হামলা করেননি দাবি করে ওদের বিতাড়িত করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন। এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে ফটিকছড়ি থানার পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
এ ব্যাপারে গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় ফটিকছড়ি থানার ওসি বাবুল আক্তারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ পর্যন্ত কোন পক্ষ অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেনি বলে জানান।

The Post Viewed By: 135 People

সম্পর্কিত পোস্ট