চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:২৯ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

রোহিঙ্গাদের এনআইডি : নির্বাচন অফিসের কর্মচারীসহ আটক ৩

রোহিঙ্গাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) পাইয়ে দেয়ার অভিযোগে চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন অফিসের এক কর্মচারীসহ তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার তাদের আটক করা হয়।

আটক তিন জন হলো- ডবলমুরিং থানা নির্বাচন অফিসের অফিস সহায়ক জয়নাল আবেদিন (৩৫), পটিয়া উপজেলার মৃত হারাধন দাসের ছেলে বিজয় দাস (২৬) ও তার বোন সীমা দাস ওরফে সুমাইয়া (২৪)। সীমা চট্টগ্রাম সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আয়া পদে কর্মরত রয়েছেন।

চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. হাসানুজ্জামান পূর্বকোণকে বলেন, ‘আটক তিন জন পরস্পর যোগসাজশে রোহিঙ্গাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) পাইয়ে দিয়েছেন এমন অভিযোগ পেয়ে আমরা তাদেরকে আটক করি। থানায় খবর দেওয়া হয়েছে। পুলিশ এলে আমরা তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করবো। এ ঘটনায় তিন জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হবে।’

আটকের পর নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. হাছানুজ্জামান বলেন, ‘গত তিন দিনে কক্সবাজার থেকে আটক হওয়া ছয় জনের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার সন্ধ্যায় জয়নালকে আটক করে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করি। তার হেফাজতে নির্বাচন কমিশনের লাইসেন্স করা একটি ল্যাপটপ ছিল। ‘লাইসেন্স করা ল্যাপটপটি ব্যবহার করে তারা এনআইড জালিয়াতি করেছে। ওয়েবক্যামের মাধ্যমে ছবি তুলে এই ল্যাপটপ দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় সব কাজ করা যায়। জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, নির্বাচন কমিশনের ল্যাপটপটি বন্ধু বিজয় দাসের কাছে রেখেছে সে। পরে বিজয় দাসকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে জানায় সেটি তার কাছে নেই সেটি তার বোনে সুমাইয়ার কাছে আছে। পরে সুমাইয়াকেও আটক করা হয়।

আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. হাছানুজ্জামান বলেন, এই চক্রের সঙ্গে আরও কর্মচারী জড়িত থাকতে পারে। তদন্ত করে তাদেরকেও খুঁজে বের করা হবে।’

পূর্বকোণ/পলাশ

The Post Viewed By: 229 People

সম্পর্কিত পোস্ট