চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:৩৫ পূর্বাহ্ণ

সিআইইউতে আউটকাম বেসড এডুকেশন বিষয়ক কর্মশালা

সময়ের সঙ্গে বাড়ছে যুগোপযুগী শিক্ষার গুরুত্ব। আর তাই বিদ্যমান কোর্স-কারিকুলামও হতে হবে যুগোপযুগী। বিশে^র প্রায় সব বড় বিশ^বিদ্যালয়গুলোতে এখন চালু হয়েছে আউটকাম বেসড অ্যাডুকেশন। চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটিও (সিআইইউ) যেন এই ধারা থেকে পিছিয়ে নেই।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর নগরের জামাল খান ক্যাম্পাসে সিআইইউর স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হল ‘ফার্স্ট ওয়ার্কশপ অন আউটকাম বেসড অ্যাডুকেশন’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা।
অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্যে চুয়েট এর কমপিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামান আউটকাম বেসড অ্যাডুকেশনের উদ্দেশ্য, লক্ষ্য ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন। তিনি ওয়াশিংটন অ্যাকর্ড এর আলোকে ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার অ্যাক্রেডিটেশন এর প্রয়োজনীয়তা ও বাংলাদেশে এর বর্তমান অবস্থার চিত্র সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিআইইউর উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী এই ধরণের আয়োজন আগামীতে গুণগত শিক্ষা নিশ্চিতকরণে বড় ধরণের ভূমিকা রাখবে বলে মন্তব্য করেন। তিনি শিক্ষার উন্নয়ন বিষয়ক যে কোনো ধরণের অনুষ্ঠানে তার সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে উল্লেখ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে সিআইউর স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এর ডিন অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল হক খান আউটকাম বেসড অ্যাডুকেশনের প্রেক্ষাপট, বর্তমান অবস্থা ও গুরুত্বের কথা তুলে ধরেন।
সিআইইউর ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেন ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং এর প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক ড. আসিফ ইকবাল, কমপিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান আতিকুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আনজুমান বানু লিমা প্রমুখ।

এসময় তারা জানান, আউটকাম বেইসড ক্যারিকুলাম একটি রীতিবদ্ধ ধারা। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের জন্য গুণগত পাঠদান, নিত্য নতুন জ্ঞান সৃষ্টি, ব্যবহারিক দক্ষতা, বিশ্লেষণী ক্ষমতা, বিচক্ষণতা ইত্যাদি নিশ্চিত করা হয়।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 51 People

সম্পর্কিত পোস্ট