চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:২৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

পাইপ বেয়ে ভবনে উঠে মোবাইল চুরি

বাকলিয়ায় চোরচক্রের সাত সদস্য গ্রেপ্তার

নগরীর বাকলিয়া থেকে সাত যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, যারা চোরচক্রের সদস্য বলে জানিয়েছে পুলিশ। এই চক্রের সদস্যরা পাইপ বেয়ে ৮ থেকে ১০ তলা ভবনে নির্বিঘেœ উঠতে সক্ষম এবং দুই থেকে তিন মিনিটের মধ্যে জানালার ‘লক ভেঙে’ চুরিতে পারদর্শী। বাকলিয়া থানার পরিদর্শক (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন জানান, শুক্রবার গভীর রাতে নগরীর কল্পলোক আবাসিক এলাকা সংলগ্ন কর্ণফুলী নদীর বেড়িবাঁধ থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার সাতজন হলো- দলনেতা মো. শহিদুল ইসলাম শহিদ (২২), তার সহযোগী মো. তৈয়ব (২০), ইরফান (২০), মো. জাহাঙ্গীর (৩০), মো. রাসেল (১৮), মো. রাজু (১৮) এবং মো. সুমন (১৮)। ওসি নেজাম বলেন, ‘কল্পলোক আবাসিক এলাকার বাসিন্দাদের কাছ থেকে আমরা দীর্ঘদিন ধরে মৌখিকভাবে অভিযোগ পাচ্ছিলাম যে, তাদের বাসার জানালা খুলে চুরি হয়েছে। তবে কেউ মামলা করেনি। শুক্রবার রাতে একটি চোরের দল বেড়িবাঁধ এলাকায় অবস্থান করছে জানতে পেরে আমরা অভিযান চালিয়ে সাতজনকে গ্রেপ্তার করি। এই চক্রের দলনেতা হচ্ছে শহিদ। তারা খুবই কৌশলী। সাতজনের টিম একসঙ্গে চুরি করতে বের হয়। চারজন ভবনের সামনে রাস্তায় থাকে। দুজন নির্জন ভবনের নিচে দাঁড়ায়। একজন পানির পাইপ বেয়ে ওপরে উঠে

যায়। ৮ থেকে ১০ তলা ভবন তারা ২-৩ মিনিটে উঠতে পারে। জানালার যে কোনো লক খোলার কৌশল তাদের জানা আছে। জানালা খুলে ২-৩ মিনিটের মধ্যে মোবাইল বা হাতের কাছে অন্য কোনো দামি জিনিস পেলে সেটা নিয়ে দ্রুত নেমে যায়। গ্রেপ্তার সাতজনের কাছ থেকে ১০টি চোরাই মোবাইল ও একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। চুরি করতে যাবার সময় তারা আগ্নেয়াস্ত্রও রাখে। প্রতিরোধ বা ধরে পড়ে যাবার উপক্রম হলে তারা অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে পালিয়ে যাবার জন্য অস্ত্র রাখে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে। ওসি আরও বলেন, সাতজনকে গ্রেপ্তারের পর কল্পলোক আবাসিক এলাকার অনেক বাসিন্দা অভিযোগ নিয়ে থানায় আসছেন। চুরির শিকার একজন বাসিন্দার কাছ থেকে আমরা ভিডিও ফুটেজও সংগ্রহ করেছি। অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের হয়েছে।

The Post Viewed By: 447 People

সম্পর্কিত পোস্ট