চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:৫০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মতবিনিময় সভায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানরা

মানসম্মত শিক্ষার জন্য প্রয়োজন দক্ষ শিক্ষক

মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের ক্ষেত্রে এ খাতে আরো বরাদ্দ দরকার। সেইসাথে দক্ষ শিক্ষক তৈরিতে প্রয়োজন কর্মশালার পাশাপাশি বিশেষ গবেষণা। সৃজনশীল প্রশ্নপত্র প্রণয়নের ক্ষেত্রে শিক্ষকদের পর্যাপ্ত ট্রেনিং বা প্রশিক্ষণের প্রয়োজন। আইসিটি ও বিজ্ঞান বিষয়ের সিলেবাস পরিবর্তনের প্রয়োজন রয়েছে। এছাড়া, জাতীয় বিশ^বিদ্যালয়ের পরীক্ষা নেয়ার জন্য প্রতি জেলায় পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপনের দাবি জানান চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের আওতাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা। চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আয়োজনে শিক্ষার মানোন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা এসব কথা বলেন। গতকাল শনিবার সকালে শিক্ষা বোর্ডের মিলনায়তনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মতবিনিময় সভায় প্রতিষ্ঠান প্রধানরা আরো বলেন, মফস্বলে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থী আশঙ্কাজনক হারে কমছে। সৃজনশীল প্রশ্ন কঠিন হওয়া এবং প্রাইভেটমুখী হওয়ায় বিজ্ঞান বিভাগে শিক্ষার্থীর সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে। অন্যদিকে মানবিক বিভাগে ফেলের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানসম্মত শিক্ষার জন্য প্রয়োজন মানসম্মত শিক্ষক। তাই শীঘ্রই সৃজনশীলের উপর প্রশিক্ষণ প্রয়োজন বলে জানান প্রতিষ্ঠান প্রধানরা।
কোচিং বাণিজ্য বন্ধ এবং শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষা প্রদানে সংশ্লিষ্টদের আরো আন্তরিক হওয়ার পরামর্শ দেন শিক্ষক প্রতিনিধিরা। আর প্রতিনিয়ত পিছিয়ে থাকা পার্বত্য এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি সরকারের আরো নজর দেয়া প্রয়োজন বলে মত দেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা।

মত বিনিময় সভার সভাপতিত্ব করেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর শাহেদা ইসলাম। শিক্ষা বোর্ডের উপ-সচিব বেলাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা শিক্ষা অফিসের পরিচালক প্রফেসর প্রদীপ চক্রবর্তী।

প্রফেসর শাহেদা ইসলাম বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সব প্রস্তাবনা আমরা নোট করে নিয়েছি। আমরা এ প্রস্তবনাগুলো শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর কাছে পাঠাবো। তিনি এসব দেখে যথাযত সিদ্ধান্ত নিবেন। শারীরিক অসুস্থ থাকায় উপমন্ত্রী আমাদের মাঝে উপস্থি হতে পারেননি।

তিনি আরো বলেন, মতবিনিময় সভার মূল বিষয় হচ্ছে শিক্ষার মানউন্নয়ন। মানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থার জন্য প্রয়োজন মান সম্মত শিক্ষক। কিন্তু রাতারাতি মানসম্মত তৈরি হয় না। উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে সৃজনশীল প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত শিক্ষকের সংখ্যা খুবই কম। এই সংখ্যা বাড়াতে হবে। সৃজনশীল পক্রিয়া ক্লাসে অনুসরণ করতে হবে। শুধুমাত্র পরীক্ষার জন্য সৃজনশীল প্রশ্ন করলেই হবে না।
মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন শিক্ষা বোর্ডের সচিব প্রফেসর শওকত আলম, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান, কলেজ পরিদর্শক জাহেদুল হক, বিদ্যালয় পরিদর্শক ড. বিপ্লব গাঙ্গুলী, উপ-পরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) নারায়ন চন্দ্র নাথ। মতবিনিময় সভায় ৪৬০ জন প্রধান শিক্ষক ও অধ্যক্ষ উপস্থিত ছিলেন।

The Post Viewed By: 49 People

সম্পর্কিত পোস্ট