চট্টগ্রাম সোমবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:৩৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা হ কক্সবাজার

এনজিওতে নিয়োগের নামে প্রতারণা, আটক ৪ কক্সবাজার

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার ঠিকানায় বিএমএম ফাউন্ডেশন নামে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে (এনজিও) চাকুরির নামে প্রতারণার অভিযোগে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে শহরের খুরুশকুল রাস্তার মাথা সংলগ্ন শহীদ তিতুমির ইনস্টিটিউট (পরীক্ষা কেন্দ্র) থেকে তাদের আটক করা হয়েছে। এ সময় পরীক্ষার খাতা, প্রশ্নপত্রসহ আনুষঙ্গিক সরঞ্জাম জব্দ করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন কথিত প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান এসএম মাসুম বিল্লাহ, ফিন্যান্স অফিসার শাহাদাত হোসেন খান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক জালাল উদ্দিন ও মোহাম্মদ ইউনুস। পরীক্ষার্থীদের অভিযোগের ভিত্তিতে সদর মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক প্রদীপ কুমারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে। বিএমএম ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তারা পরীক্ষা নিতে গেলেও স্বপক্ষে কোন ডকুমেন্টস দেখাতে পারেনি। বরং পরীক্ষার আগেই পরীক্ষার্থীদের হাতে হাতে উত্তরপত্র পৌঁছে গেছে। যা দেখে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে পরীক্ষার্থীরা। জানা গেছে, বিএমএম ফাউন্ডেশনে তিন পদে ১৪ জনকে চাকুরি দেয়ার নামে ১২০০ জনকে পরীক্ষায় আহ্বান করে। এসএমএস এর মাধ্যমে পরীক্ষার তারিখ, সময় ও স্থান জানিয়ে দেয়। সকাল ১০টায় নির্ধারিত কেন্দ্রে

পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও পরীক্ষা শুরুর আগে প্রত্যেক জন থেকে ৩০০ টাকা করে রেজিস্ট্রেশন ফি দাবি করে আয়োজকরা। অথচ পরীক্ষার আগে কোন আবেদনকারীকে টাকার বিষয়ে জানানো হয়নি বলে অভিযোগ পরীক্ষার্থীদের। মূলত: টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে ফুঁসে ওঠে পরীক্ষার্থীরা। এরপর পরীক্ষা কেন্দ্রের ভেতরে আটকে রাখা হয় আয়োজকদের। বাইরে প্রতিবাদ ও শ্লোগানে মুখরিত করে তোলে শত শত শিক্ষার্থী ও বেকার যুবক। রাঙামাটি থেক বিধান চাকমা, ম্যানশন চাকমা, ইচ্ছে চাকমা, বাঁশখালী থেকে রেজাউল করিম, সদরের পিএমখালী থেকে ফয়সাল মাহমুদ, রফিক বিন সাঈদ, রিদুয়ানের মতো অন্তত এক হাজার বেকার য্বুক পরীক্ষা দিতে যান। যারা চাকুরির জন্য গিয়েই প্রতারিত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি মো. ফরিদ উদ্দিন খন্দকার জানান, পরীক্ষার নামে প্রতারণার অভিযোগে চারজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

The Post Viewed By: 229 People

সম্পর্কিত পোস্ট