চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ১:২১ এএম

বিএআরটিএ’র অভিযান ৫ দালালকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ-

নগরীর বিআরটিএ’র বিভাগীয় কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে ৫ দালালকে কারাদ- দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল বুধবার সকালে এ অভিযান পরিচালনা করেন বিআরটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক। এ সময় দোকান পরিচালনায় অনুমতিপত্র না থাকায় ২টি দোকান সিলগালা করে দেয়া হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, প্রতিষ্ঠানটির চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয় প্রাঙ্গণে অবস্থিত খাবারের ক্যান্টিন, ফটোকপির দোকান ও অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রের দোকানের কর্মচারীরা দীর্ঘদিন ধরে দালালির কাজ করছিলেন। সেবা নিতে আসা লোকজনকে ফাঁদে ফেলে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিতেন তারা। সেবা গ্রহিতাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব ও পুলিশের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে ৫ দালালকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। দ-প্রাপ্তরা হলেন হাটহাজারী উপজেলার খন্দাকিয়া গ্রামের ইউনুচনগর এলাকার মো. সরোয়ারের ছেলে মো. ইমরান (২১), একই এলাকার মৃত মো. ইসহাকের ছেলে মো. আরমান (২২), হাটহাজারী উপজেলার দক্ষিণ পাহাড়তলী ফতেয়াবাদ এলাকার মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে জাহেদুল ইসলাম রনি (৩২), একই এলাকার মো. জানে আলমের ছেলে মো. বেলাল হোসেন (২২) এবং হাটহাজারী উপজেলার শিকারপুর ইউনুচনগর এলাকার মৃত বাবুল বিশ্বাসের ছেলে সাজু বিশ্বাস (২৯)। বিএআরটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস. এম. মনজুরুল হক বলেন, বিআরটিএ’তে দালালের তৎপরতা বেড়ে গিয়েছিল বলে সেবা গ্রহিতাদের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। বুধবার সকালে অভিযান চালিয়ে ৫ দালালকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- দেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ফটোকপি দোকানের কর্মচারী মো. আরমানকে ১ মাস, সাজু বিশ্বাসকে ১৫ দিন, মো. ইমরানকে ১৫ দিন, বিআরটিএ প্রাঙ্গণ থেকে আটক জাহেদুল ইসলাম রনিকে ১ মাস এবং মো. বেলাল হোসেনকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদ- দেওয়া হয়।

The Post Viewed By: 162 People

সম্পর্কিত পোস্ট