চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:২০ পূর্বাহ্ণ

সুকান্ত বিকাশ ধর হ সাতকানিয়া

সাতকানিয়ায় আ. লীগের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী এমএ মোতালেব

মনোনয়ন বঞ্চিতদের দুঃখের সাগরে ভাসিয়ে ও সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে আসন্ন সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ. লীগ থেকে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন পেয়েছেন সাতকানিয়া উপজেলা আ. লীগের সভাপতি এম এ মোতালেব সিআইপি। গতকাল শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে গণভবনে দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে

অনুষ্ঠিত দলীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। দক্ষিণ জেলা আ. লীগের সা. সম্পাদক মফিজুর রহমান, এম এ মোতালেব আ. লীগ থেকে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে মনোনয়ন বঞ্চিতরা মোতালেব মনোনয়ন পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা বলছেন, নির্বাচন করবেনা বলে মোতালেব ভেতরে-ভেতরে নির্বাচন করার জন্য লবিং চালিয়ে মনোনয়ন ভাগিয়ে নিয়েছেন। ফলে তিনি মনোনয়ন প্রত্যাশী ও তৃণমুলের সাথে চিটিং ও বেঈমানী করেছেন।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় গণভবনে আগামী ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আ. লীগ থেকে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেয়ার জন্য মনোনয়ন বোর্ডের সভা দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সারা দেশে ৮টি উপজেলায় আ. লীগ থেকে চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনীত করা হয়। এদের মধ্যে সাতকানিয়ায় উপজেলা আ. লীগের সভাপতি এমএ মোতালেব সিআইপিকে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেওয়া হয়।

জানা যায়, আগামী ১৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দক্ষিণ জেলা আ. লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নুরুল আবছার চৌধুরী, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক গোলাম ফারুক ডলার, কার্যনির্বাহী সদস্য মোস্তাক আহমদ আঙ্গুর, সাতকানিয়া আ. লীগের সভাপতি এম এ মোতালেব সিআইপি, সা. সম্পাদক কুতুব উদ্দিন চৌধুরীসহ-সভাপতি বশির আহমদ চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন দক্ষিণ জেলা সভাপতি আবু ছালেহ মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিল। তবে মোতালেব ছাড়া অন্যরা দল থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকলেও চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি আন্দরকিল্লাস্থ দলের দক্ষিণ জেলা কার্যালয়ে সভায় চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় শেষে সম্ভাব্য তিনজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম কেন্দ্রে পাঠানোর কথা থাকলেও দক্ষিণ জেলা আ. লীগ একক প্রার্থী হিসেবে এমএ মোতালেব সিআইপির নাম প্রস্তাব করেন। এ খবর জানাজানি হলে চেয়ারম্যান পদে দলের মনোনয়ন পেতে ইচ্ছুক অন্য নেতারাও দলের মনোননয়ন ফরম কিনে কেন্দ্রীয় অফিসে জমা দেন। কিন্তু পরবর্তীতে নির্বাচনে পিছিয়ে গেলে সেই সময়কার প্রার্থী নির্ধারণের কাজও থমকে যায়। সম্প্রতি নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করলে গতকাল ৭ সেপ্টেম্বর শনিবার সন্ধ্যায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সভায় সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে এমএ মোতালেবের নাম ঘোষণা করা হলে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন মনোনয়ন প্রত্যাশীদের অনেকেই। এদের মধ্যে দক্ষিণ জেলা আ. লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক গোলাম ফারুক ডলার বলেন, মোতালেব সাহেব নির্বাচন করবেন না বলার কারণেই আমরা মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়েছিলাম। সে অনুযায়ী এলাকায় কাজ করেছি। কিন্তু তিনি ভেতরে ভেতরে মনোনয়নের কাজ চালিয়ে যাওয়াটা আমাদের এবং তৃণমুল নেতাকর্মীদের সাথে চিটিং ও বেঈমানি করেছেন বলে মনে করি। দেশের বাইরে অবস্থান করায় এমএ মোতালেবের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে দক্ষিন জেলা আ. লীগের সা. সম্পাদক মফিজুর রহমান বলেন, দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাতকানিয়া উপজেলা আ. লীগের সভাপতি এম এ মোতালেবকে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছি। তিনি সাতকানিয়া থেকে উপজেলায় চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 265 People

সম্পর্কিত পোস্ট