চট্টগ্রাম শনিবার, ০৬ মার্চ, ২০২১

সর্বশেষ:

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:২০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুপুরে থানায় আত্মসমর্পণ রাতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

এলাকায় মিষ্টি বিতরণ

নগরীর খুলশী থানায় আত্মসমর্পণের পর পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে মোহাম্মদ বেলাল (৪৩)। ওই আসামি বন্দুকযুদ্ধ হওয়ার ১২ ঘণ্টা আগে থানায় আত্মসমর্পণ করেছিলেন। পুলিশ জানিয়েছে তার বিরুদ্ধে খুনসহ ১৩ টি মামলা রয়েছে। গত বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে খুলশী থানার জালালাবাদ পাহাড়ে এই বন্দুকযুদ্ধ হয় বলে পুলিশ দাবি করেছে। নিহত বেলাল নগরীর আমবাগানে রেলওয়ে লোকোশেড কলোনির আব্দুল কাদেরের পুত্র। তার বাড়ি কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার মোহনপুর গ্রামে বলে পুলিশ জানিয়েছে। নিহত বেলালের বিরুদ্ধে জমি দখল, চাঁদাবাজি, খুনসহ বিভিন্ন অভিযোগে মোট ১৩টি মামলা ছিল। তার মধ্যে তিনি ১১টি মামলায় জামিনে ছিলেন। দুইটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল। গত বুধবার দুপুরে বেলাল থানায় পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চান বলে পুলিশকে জানান। খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রণব চৌধুরী বলেন, বুধবার দুপুর ১টার দিকে বেলাল আত্মসমর্পণ করেন। তার তথ্যের ভিত্তিতে জালালাবাদের পাহাড়ে রাতে বেলালকে অস্ত্র উদ্ধারে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় একদল সন্ত্রাসী তাকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এই ঘটনায় পুলিশের সাথে প্রায় ২০ মিনিট ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ বেলালকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ(চমিক) হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি ও তিন রাউন্ড কার্তুজ এবং ৪টি রাম দা উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বেলাল স্থানীয়ভাবে আওয়ামী লীগ সমর্থিত পাহাড়তলী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন হিরণের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। বন্দুকযুদ্ধে বেলালের নিহত হওয়ার ঘটনায় ওয়ার্লেস কলোনি এলাকায় আওয়ামী লীগের একটি অংশ এবং এলাকাবাসী এলাকায় মিষ্টি বিতরণ করে।

এদিকে, স্থানীয় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বেলাল হোসেনকে শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক দাবি করা হয়। ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, খুলশী থানাধীন ১৩নং পাড়াতলী ওয়ার্ডস্থ শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের তৃণমূলের কর্মী মো. বেলাল হোসেন (৪৩) খুলশী থানা আত্মসমর্পণ করে ঐদিন ভোরে জালালাবাদ পাহাড়ি এলাকায় পুলিশের গুলিতে ইন্তেকাল করেন (ইন্না..রাজেউন)। গতকাল বাদ আছর আমবাগান বায়তুল আমান জামে মসজিদ মাঠে মসজিদের ইমাম মো: মুকবুল আহমেদের ইমামতিতে মরহুমের নামাজের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযাশেষে স্টেশন রোডস্থ চৈতন্যা গল্লি কবরস্থানে দাফন করা হয়। মো. বেলাল হোসেনের মৃত্যুতে খুলশী থানা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও ১৩নং পাহাড়তলী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন হীরন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন আহমেদ ভুঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক কায়সার মালিক, ওয়ার্ড যুবলীগের আহ্বায়ক অধ্যাপক কাজী মুজিবুর রহমান মুজিব শোক প্রকাশ করেছেন। জানাযার নামাজে খুলশী থানা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সদস্য সচিব ও ১৩নং পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক মো. সাইদুল কবির বাহার, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হান্নান হীরা, শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের সহ-সভাপতি মো. আমির হোসেন, যুবলীগ নেতা মো. সাইফুল ইসলাম, মো. শামছুদ্দিন, বেলাল হোসেন মনা, মো. জসিম উদ্দিন, মো. বোরহান, ছাত্রলীগ নেতা হোসাইন রাজু, পারভেজ হোসেন, আমবাগান সমাজকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শেখ মো: নাছির উদ্দিনসহ ১৩নং পাহাড়তলী ওয়ার্ডের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 238 People

সম্পর্কিত পোস্ট