চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৪ মার্চ, ২০২১

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | ২:০৮ পূর্বাহ্ণ

কারবালা মাহফিলের ৫ম দিনে বক্তারা

রাসুলের মর্যাদা ও শানের ওপর আঘাত হানার কারণে ইয়াজিদ ধিকৃত হয়েছে

দূর দূরান্ত থেকে আসা হাজারো দ্বীনদার আহলে বায়তপ্রেমী সুন্নি ছাত্র উলামা জনতার অংশগ্রহণে জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে চলমান আন্তর্জাতিক শাহাদাতে কারবালা মাহফিল মুখরিত হয়ে উঠেছে। গতকাল ৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার আহলে বায়তে রাসূল (দ.) স্মরণে আয়োজিত ৫ম দিবসের মাহফিলে ভারত থেকে আসা আন্তর্জাতিক বক্তা আল্লামা সাখাওয়াত হোসাইন বরকাতি বলেছেন, সাম্য সুবিচার নিশ্চিত করা এবং জনগণের প্রত্যাশা আমলে নিয়ে দেশে শান্তি ও জননিরাপত্তা ফিরিয়ে আনাই হচ্ছে একটি গণকল্যাণমুখী আদর্শ রাষ্ট্রের বৈশিষ্ট্য। আর হযরত ইমাম হোসাইন (র.) তাই চেয়েছিলেন। কিন্তু আহলে বায়তে রাসূলের (দ.) শান মর্যাদার ওপর আঘাত হানার কারণে ইয়াজিদ ধিকৃত হয়ে আসছে। গতকাল মহফিলের ৫ম দিনে সভাপতিত্ব করেন বোয়ালখালি হাওলা দরবার শরিফের সাজ্জাদানশিন শাহাজাদা মাওলানা মুহাম্মদ নঈমুল কুদ্দুস আকবরি। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চউক চেয়ারম্যান আলহাজ জহিরুল আলম দোভাষ। তিনি বলেন, হক-বাতিলের মধ্যে দ্বন্দ্ব-সংঘাত চিরন্তন। যুগে যুগে হক-বাতিলের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে এলেও শেষ বিচারে হকপন্থিরাই জয়ী হয়ে আসছে। এটিই হযরত ইমাম হোসাইনের (রা.) শাহাদাতের দর্শন ও কারবালার শিক্ষা। মাহফিলে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন শাহাদাতে কারবালা মাহফিল পরিচালনা পর্ষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও চেয়ারম্যান
। ৯ম পৃষ্ঠার ২য় ক.­

এবং পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান আলহাজ সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, হযরত ইমাম হাসান (র.) ও হযরত ইমাম হোসাইন (র.) কে যারা প্রাণ উজাড় করে ভালোবাসে, তারা নিঃসন্দেহে আল্লাহ ও রাসূলের (দ.) নৈকট্যধন্য হবেন।
মাহফিলে তকলিদ ও লামাযহাব বিষয়ে আলোচনা করেন ঢাকা নেছারিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ড. আল্লামা কফিল উদ্দিন সরকার সালেহী। তাসাউফের প্রয়োজনীয়তা বিষয়ে আলোচনা করেন আল্লামা কাজী মুঈন উদ্দিন আশরাফি। তিনি বলেন, তাসাউফ মানে আত্মশুদ্ধি। সূফি সাধকরাই যুগে যুগে ইসলামের পতাকা উড্ডীন রেখেছেন।
বক্তব্য রাখেন খতিবের হাট তৈয়বিয়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া ও লেখক-গবেষক মাওলানা সাইফুল আজম আজহারি।

ড. মুহাম্মদ জাফর উল্লাহর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মাহফিলে অতিথি ছিলেন কানাডা থেকে আগত আলহাজ মাসুদুর রহমান, পিএইচপি পরিবারের পরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম রিংকু, আলহাজ শাহসূফি সৈয়দ আহমদ হোসাইন শাহরিয়ার, আলহাজ শাহসূফি সৈয়দ শহিদুল হক মাইজভা-ারী, সাতগাছিয়া দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন আলহাজ মাওলানা আবুল ফজল মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ সুলতানপুরী, ঢাকা নেছারিয়া কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ ড. আলহাজ মাওলানা মুহাম্মদ কফিল উদ্দীন সকরার সালেহী, খতীবের হাট তৈয়্যবিয়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া, মাওলানা ওবাইদুল হক হক্কানী বোয়ালখালী সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান। কুরআন মজিদ থেকে তেলাওয়াত করেন আন্তর্জাতিক ক্বারী শাইখ আহমাদ বিন ইউসুফ আল আজহারী। হামদ ও নাতে রাসূল (দ) পরিবেশন করেন শায়ের তানজিম আসরার। আলহাজ মোহাম্মদ সেকান্দর মিয়া, শাহ আমানত (র.) দরগাহ শরীফের মোতোয়াল্লী আতাউল্লা আব্দুল্লাহ, নানুপুর দরবার শরীফের সৈয়দ এহাসান ইছাপুরি এবং শাহাদাতে কারবালা মাহফিল পরিচালনা পর্ষদের কর্মকর্তা ও সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সালাত সালামশেষে বিশ্বের নিপীড়িত মানবতা পরিত্রাণ, দেশ ও বিশ্ববাসীর শান্তি সমৃদ্ধি কামনায় মুনাজাত করা হয়। আজ শুক্রবার মাহফিলের ৬ষ্ঠ দিবসে সভাপতিত্ব করবেন চট্টগ্রামে চেম্বার সভাপতি আলহাজ মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম। মাহফিলের ৬ষ্ঠ দিবস থেকে জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের নিচতলায় মহিলাদের জন্য পর্দা সহকারে বক্তব্য শোনার ব্যবস্থা থাকবে। বিদেশী আলোচক থাকবেন আল্লামা সাখাওয়াত হোসাইন বরকাতি (ভারত)।-বিজ্ঞপ্তি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 165 People

সম্পর্কিত পোস্ট