চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২৫ আগস্ট, ২০১৯ | ২:০০ এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইলিশের চেয়ে লইট্টা বেশি

৩৫ নম্বর বক্সিরহাট

ভর মৌসুমে সাগরে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে ইলিশ। তবে চলতি সপ্তাহে সাগরে লঘুচাপের কারণে ইলিশের পরিমাণ কমে এসেছে। ধরা পড়ছে বিপুল পরিমাণ লইট্টাসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। তারপরও ক্রেতা-বিক্রেতাদের হাঁকডাকে মুখরিত হয়ে ওঠেছে কর্ণফুলীর তীরের ফিশারিঘাট মৎস্য অবতরণকেন্দ্র। ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন মৎস্যজীবী ও শ্রমিকরা।

কর্ণফুলী নদীর চাক্তাই-রাজাখালী খালের তীরে ভোর থেকে মাছের নৌকা নোঙর করা শুরু হয়। বোট থেকে মাছ খালাসে ব্যস্ত হয়ে পড়েন শ্রমিকেরা। ভোর সকালেই নদীর তীরে গড়ে ওঠা মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে জেলে, শ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের ব্যস্ততা শুরু হয়। বসে ইলিশসহ মাছের হাট। বিভিন্ন স্থান থেকে মাছ ব্যবসায়ীরা মাছ কিনে ফিরছেন। ভরা মৌসুম হওয়ায় ইলিশের প্রাধান্যই বেশি। ইলিশের সঙ্গে রয়েছে লইট্টা মাছ।

ফিশারিঘাটের আড়তদার শামসুল ইসলাম জানান, গত সপ্তাহে সাগরের ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়েছে। কিন্তু চলতি সপ্তাহে বৈরী পরিবেশের কারণে ইলিশের পরিমাণ কিছুটা কমে এসেছে। জেলেরা গভীর সমুদ্র থেকে ফিরে আসছে। তবে ইলিশ ছাড়াও লইট্টাসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ বেশি পাওয়া যাচ্ছে।

সোনালি মৎস্যযান সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বাবুল সরকার জানান, চট্টগ্রামে মাছ ধরার ৫ হাজারের বেশি নৌকা-বোট রয়েছে। গত সপ্তাহে প্রচুর পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়ছে। চলতি সপ্তাহে কিছুটা কমে গেছে। বৈরী আবহাওয়ার কারণে গভীর সমুদ্রে ইলিশ কম ধরা পড়েছে।

মৎস্য কর্মকর্তারা জানান, গভীর সমুদ্রের চেয়ে উপকূলীয় এলাকায় বেশি ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে। জেলেরা সাগরে গেলেও বৈরী আবহাওয়ার কারণে ফিরে আসতে হচ্ছে। আগামী ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশের প্রজনন মৌসুমে সাগরে ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। এই ২১ দিন ইলিশ ধরা, বিক্রয়, মজুদ, পরিবহন নিষিদ্ধ ছিল।
জেলেরা জানান, ভরামৌসুমে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ায় দাম এখন অনেকটা কমে গেছে। বোট মাঝি ভোলার চরফ্যাশনের মনপুরা এলাকার আখতার হোসেন, রামগতি এলাকার খোরশেদ আলম জানান, চলতি সপ্তাহে কাক্সিক্ষত মাছ পাওয়া যায়নি। তবে উপকূলীয় এলাকা থেকে ছোট বোটগুলো ভালো মাছ ধরছে।

মৎস্য কর্মকর্তা ও জেলেরা জানান, উপকূলীয় এলাকা বাঁশখালী, আনোয়ারার গহিরা, কাট্টলি, পতেঙ্গা, হালিশহর আনন্দবাজার, সীতাকু-ের কুমিরা, ডোমখালী এলাকায় ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে।
দিনে অর্ধ শতাধিক নৌকা-বোট মাছ নিয়ে কর্ণফুলী তীরে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে ফিরছেন জেলেরা। মাছ আড়তে তুলছে মাঝি-মাল্লা থেকে শুরু করে শ্রমিক, দিনমজুররা।

The Post Viewed By: 150 People

সম্পর্কিত পোস্ট