চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২২ আগস্ট, ২০১৯ | ১২:৪১ পিএম

অনলাইন ডেস্ক

শুরু হয়নি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন

মিয়ানমারের সম্মতির পর আজ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের কথা থাকলেও এখনও তা শুরু হয়নি। তবে তৃতীয় দিনের মতো তালিকাভুক্ত রোহিঙ্গাদের সাক্ষাৎকার চলছে। এর আগে গত দুদিনে ২৩৫ পরিবারপ্রধানের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হয়।

আজ বৃহষ্পতিবার ২২ আগস্ট টেকনাফের কেরুনতলী এবং বালুখালীর তুমব্রু পয়েন্ট দিয়ে মিয়ানমারের অনুমোদিত সাড়ে তিন হাজার রোহিঙ্গাদের মধ্যে ১ম দফায় ৩০০ জন রোহিঙ্গা ফেরৎ যাওয়ার কথা ছিল।

শালবাগান ক্যাম্প ইনচার্জ মো. খালেদ হোসেন জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। তবে এখনও প্রত্যাবাসন শুরু হয়নি।

এদিকে টেকনাফের শালবাগান ২৬ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ২০ আগস্ট ২১ পরিবার এবং ২১ আগস্ট ৮০ পরিবার মোট ১০১ পরিবারের সাক্ষাৎকার সম্পন্ন হয়েছে। আজ ২২ আগস্টও সাক্ষাৎকার গ্রহণ চলছে। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) এবং রোহিঙ্গা ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশণারের (আরআরআরসি) কার্যালয়ের সমন্বয়ে ১০টি দল শালবাগানের বিভিন্ন ব্লকের ঘরে ঘরে প্রত্যাবাসন তালিকায় নাম থাকা রোহিঙ্গাদের সিআইসি কার্যালয়ে আসার জন্য বলা হচ্ছে। ইউএনএইচসিআর এবং শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি) কার্যালয়ের প্রতিনিধিরা সাক্ষাতকার দিতে রোহিঙ্গাদের ঘরে ঘরে গিয়ে উৎসাহিত করছেন। তবে সাক্ষাৎকার দেয়া রোহিঙ্গা পরিবারের প্রধানগণ সকলেই শর্ত পুরণ ছাড়া স্বদেশে ফিরতে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছেন। শর্তগুলো হচ্ছে এনভিসি কার্ড নয় সরাসরি নাগরিকত্ব প্রদান, ভিটে-বাড়ি ও জমি-জমা ফেরত, আকিয়াব জেলায় আশ্রয় শিবিরে থাকা রোহিঙ্গাদের নিজ বাড়ীতে ফেরত, মিয়ানমারের মাব্রাই দীর্ঘদিন ধরে বন্দি এক লাখ ৮০ হাজার রোহিঙ্গাদের মুক্তি, হত্যা, ধর্ষনের বিচার, অবাধ চলাফেরা করার সুযোগ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণ। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনকে এগিয়ে নিতে জাতিসংঘ উদ্বাস্ত বিষয়ক হাইকমিশণ (ইউএনএইচসিআর) ও সরকারের পক্ষ থেকে ক্যাম্পের অভ্যন্তরে রোহিঙ্গাদের কাছে লিফলেট বিতরণ করেছে। লিফলেটে স্বদেশ ফিরে গিয়ে কোথায়, কিভাবে রাখা হবে এবং পরবর্তীতে কি কি করণীয় সে সম্পর্কে ধারণা রয়েছে।

পূর্বকোণ/পলাশ

The Post Viewed By: 122 People

সম্পর্কিত পোস্ট