চট্টগ্রাম বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯

সর্বশেষ:

২২ আগস্ট, ২০১৯ | ২:১৪ এএম

নিজস্ব সংবাদদাতা হ বান্দরবান

বান্দরবানে জজ আদালতের কর্মচারীসহ গ্রেপ্তার ৩

আদালতের নকল শাখার কাজ চলে কম্পিউটারের দোকানে !

আদালতে নকল শাখা থাকার পরেও ভবনের পার্শ^বর্তী একটি কম্পিউটার ও ফটোকপির দোকানে এতদিন পরিচালনা করা হতো নকল শাখার কাজ। এতে করে আদালতের গুরুত্বপূর্ণ নথি ও মামলার কাগজপত্রগুলো ওই দোকানেই রাখা হতো। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর আদালতের নির্দেশে জজ কোর্টের নকল শাখার কর্মচারী সবীব দত্তসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বান্দরবানের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে বান্দরবান সদর থানায় জজ কোর্টের নাজির মোহাম্মদ বেদারুল আলম বাদি হয়ে ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের মধ্যে তিনজনই জেলা জজ ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কর্মচারী। আদালতের নাজির ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা বেদারুল আলম জানিয়েছেন জেলা জজ আদালতের পার্শ^বর্তী একটি ফটোকপি ও কম্পিউটারের দোকানে নকল শাখার কর্মচারী সবীব দত্ত সহ অভিযুক্ত ৬ জন আদালতের নানা গুরুত্বপূর্ণ নথি জমা করে রাখত। সেখানেই নকল শাখার অধিকাংশ কাজ করা হতো। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর আদালত তদন্ত করে

এর প্রমাণ পায় এবং সেখান থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি ও কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়। এছাড়া ওই দোকানে থাকা একটি ল্যাপটপের মধ্যেও গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র পাওয়া গেছে। আসামিরা বিভিন্নভাবে প্রতারণার আশ্রয় নিতো বলে তদন্তে উঠে এসেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে নকল সরকার কর্মচারী সবীব দত্ত, দোকানের কর্মচারী মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ও সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ তিনজন ছাড়াও লামা কোর্টের কর্মচারী বাবু মং মারমা, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কর্মচারী রুহুল আমিন ও সাবেক গাড়িচালক উবা শৈ মারমাকে মামলায় আসামি করা হয়েছে। বর্তমানে এই তিনজন পলাতক রয়েছেন। ঘটনাটি আদালত পাড়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

The Post Viewed By: 100 People

সম্পর্কিত পোস্ট