চট্টগ্রাম বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

৩ জানুয়ারি, ২০২৩ | ৬:৩৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি নেতা জামাল হত্যার ২০ বছর পর পলাতক আসামি কাশেম কারাগারে

চট্টগ্রামের আলোচিত বিএনপি নেতা জামাল উদ্দিন চৌধুরীকে অপহরণের পর হত্যা মামলার অন্যতম আসামি আবুল কাশেম চৌধুরী ওরফে কাশেম চেয়ারম্যানকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগর পঞ্চম অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করলে শুনানি শেষে আদালত জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর ফারহানা রবিউল লিজা এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

কাশেম চেয়ারম্যান চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির উপজেলার কাঞ্চননগর উখিলবাড়ি গ্রামের মৃত বদিউল আলমের ছেলে। তিনি কাঞ্চননগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ঘটনার পর থেকে প্রায় ১৯ বছর বিদেশে পলাতক ছিলেন।

ফারহানা রবিউল লিজা বলেন, কাশেম চেয়ারম্যান উচ্চ আদালত থেকে অন্তবর্তীকালীন জামিন নিয়ে মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগর পঞ্চম অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আমরা তার জামিনের বিরোধিতা করেছি। আদালত উভয়পক্ষের শুনানি শেষে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

 

জানা যায়, ২০০৩ সালের ২৪ জুলাই রাতে চট্টগ্রান নগরীর চকবাজারে নিজের ব্যবসায়িক অফিস থেকে বাসায় ফেরার পথে অপহৃত হন জামাল উদ্দিন। ওই সময় তিনি চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ছিলেন। সংসদ নির্বাচনে আনোয়ারা থেকে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন জামাল উদ্দিন। এ মনোনয়ন ঠেকাতে ও কোটি টাকা মুক্তিপণ আদায়ের জন্য তাকে অপহরণ করা হয়েছিল বলে তখন পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। টাকা পেতে দেরি হওয়ায় তাকে খুন করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, জামাল উদ্দিন চৌধুরীকে অপহরণের পর দীর্ঘদিন পুলিশ মামলা নেয়নি। প্রায় দুই বছর জামাল উদ্দিনের পরিবারের করা মামলায় ঘটনার অন্যতম হোতা শহীদকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক ২০০৫ সালের ২৪ আগস্ট চট্টগ্রাম জেলা ফটিকছড়ির কাঞ্চননগর পাহাড়ি এলাকা থেকে জামাল উদ্দিনের কঙ্কাল উদ্ধার করে র‌্যাব।

 

পূর্বকোণ/রাজীব/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট