চট্টগ্রাম সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

সর্বশেষ:

১৪ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১২:২৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুই সংস্থার কাছেই কাস্টমসের পাওনা ৫৩৭৩ কোটি টাকা

চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আমদানি হওয়া এলএনজি ও জ্বালানি তেলের শুল্ক বাবদ রাষ্ট্রীয় দুই সংস্থা থেকে চট্টগ্রাম কাস্টমসের পাওনার পরিমাণ ৫ হাজার ৩৭৩ কোটি টাকা। এরমধ্যে কাস্টমসের হিসেব অনুযায়ী, এলএনজি আমদানির বিপরীতে বাংলাদেশ তেল, গ্যাস ও খনিজ কর্পোরেশনের কাছে (পেট্রোবাংলা) গত বছরের ডিসেম্বর থেকে এ বছরের ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত ৫ হাজার ২২৭ দশমিক ৩২ কোটি টাকার শুল্ক পরিশোধ করেনি।

 

এছাড়া জ্বালানি তেল আমদানি বাবদ বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) কাছে শুল্ক বকেয়া রয়েছে ১৪৫ দশমিক ৭২ কোটি টাকা। এ বিষয়ে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস সূত্র জানায়, বকেয়ার বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যানের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

 

অন্যদিকে ওই দুই প্রতিষ্ঠানকে বকেয়া পরিশোধের জন্য বার বার তাগাদা দেওয়া হলেও এ বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে কোনো বকেয়া পরিশোধ করেনি। এমনকি তাদের কাছে পাঠানো চিঠির কোনো জবাবও পাওয়া যায়নি। এদিকে শুল্ক বিধি অনুসারে, অন্যান্য পণ্যের ন্যায় এলএনজি আনলোড করার আগে সংশ্লিষ্ট সংস্থায় বিল অফ এন্ট্রিসহ প্রয়োজনীয় নথি জমা দিতে হয়। তবে এলএনজি আনলোড করার ছয় মাস পেরিয়ে গেলেও পেট্রোবাংলা বিল অফ এন্ট্রি এখনও জমা দেয়নি।

 

অন্যদিকে, বিপিসি প্রায় ১৪৫ কোটি ৭২ লাখ টাকা বকেয়া শুল্কের মধ্যে মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের কাছে ২৮ কোটি ৪০ লাখ ৭৯ হাজার টাকা, স্ট্যান্ডার্ড এশিয়াটিক অয়েল কোম্পানির কাছে ৫ কোটি ৭৩ লাখ ৯৮ হাজার টাকা এবং পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের কাছে ১১৬ কোটি ৭৩ লাখ ও ৯৩ হাজার টাকা বকেয়া রয়েছে।

 

প্রসঙ্গত, দেশের মোট জাতীয় বাজেটের ৫০ শতাংশ প্রদান করে এনবিআর। এর মধ্যে এনবিআরের সংগ্রহে প্রায় ২০ শতাংশ অবদান রাখে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস। কিন্তু চলতি অর্থবছরে রাষ্ট্রীয় সংস্থাগুলির বিপুল পরিমাণ অর্থ আদায় করতে না পারলে রাজস্ব আদায়ের ক্রমহ্রাসমান প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে।

 

গত অর্থবছরে ৬৪ হাজার ৭৫ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে ৫৯ হাজার ১৫৯ কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহ করেছে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস। সংস্থাটি চলতি অর্থবছরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ৭৪ হাজার ২০৬ কোটি টাকা। কিন্তু রাষ্ট্রীয় সংস্থাগুলি থেকে রাজস্ব আয় হ্রাস পেলেও বেসরকারি খাত থেকে রাজস্ব সংগ্রহ অপরিবর্তিত রয়েছে।

 

পূর্বকোণ/আর

 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট