চট্টগ্রাম সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৯ আগস্ট, ২০১৯ | ১:৪১ এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট কমান্ডের সভায় বক্তারা

বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীরা এখনো ষড়যন্ত্রে লিপ্ত

৭১ এর পরাজিত শক্তি বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে মানতে পারেনি। তাই তারা এমন ন্যাক্কারজনক কাজ করেছেন। ৭৫ সালের সেই কালো রাতে আমরা হারিয়েছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙিিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে। এখনো তারা সেই ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন। কিভাবে দেশের ক্ষতি করা যায়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অতিথিরা এ কথা বলেন।
গতকাল বিকেল চারটায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আলোচনা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম জেলা ইউনিট কমান্ড। চট্টগ্রাম জেলা কমান্ডার সাহাবউদ্দীনের সভাপতিত্বে ও সহকারী কমান্ডার এ কে এম আলাউদ্দীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) হাবিবুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কামাল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর ও জেলা-উপজেলার মুক্তিযোদ্ধার কমান্ডার ও মুক্তিযোদ্ধাগণ। কোরআন তেলোয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে শুরু করে ও অতিথিরা বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারে সদস্যদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন। আলোচনা সভায় অতিথিরা বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যিনি একটি বিধ্বস্ত বাংলাদেশকে নিজ হাতে তুলে নেন। যে দেশে রাস্তাঘাট, কালভার্ট, ব্রিজ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সব কিছু ধ্বংস করে দিয়েছে পাকিস্তানী বাহিনীরা। সেই যুদ্ধপরবর্তী ধ্বংস্তুপে পরিণত দেশকে তিনি নিজ হাতে গড়তে শুরু করেন। কিন্তু কিছু বিপদগামী সেনাসদস্যসহ রাজাকার, আলবদর, আলসামস বাহিনীদের দোসর তা মানতে পারেনি। তারা পাকিস্তানীদের দোসর হয়ে তাদের সাথে হাত মিলিয়ে জাতির পিতা ও তার পরিবারকে ১৫ আগস্ট রাতে হত্যা করে। সেই ৭৫ সালের কালো রাতে বাঙালি হলো অভিভাবকহীন। অনুষ্ঠানে অতিথিরা বঙ্গবন্ধুকে ও তাঁর জীবন নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন। আলোচনা পর্ব শেষে অতিথিরা চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।-বিজ্ঞপ্তি

The Post Viewed By: 28 People

সম্পর্কিত পোস্ট