চট্টগ্রাম শনিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২৩

সর্বশেষ:

৬ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মেরুদণ্ডের সমস্যায় ভুগছেন চট্টগ্রামের ৩৫ শতাংশ মানুষ

অসচেতনতার কারণে দিন দিন মেরুদণ্ডের জটিলতায় ভোগা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। এরমধ্যে চট্টগ্রামে প্রায় ৩৫ শতাংশ মানুষই কোন না কোনভাবেই মেরুদণ্ডের সমস্যায় ভুগছেন। স্বল্পকিছু রোগী চিকিৎসা গ্রহণ করলেও বেশিরভাগই সঠিক চিকিৎসার বাইরে থেকে যাচ্ছেন। যার কারণে দীর্ঘ জটিলতাও সৃষ্টি হচ্ছে এসব রোগীদের মধ্যে। গতকাল (সোমবার) নগরীর পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লুতে নিউরো স্পাইন সোসাইটি অফ বাংলাদেশের আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান চিকিৎসকরা।

 

বাংলাদেশে মেরুদণ্ডের শতভাগ চিকিৎসা থাকা স্বত্বেও মানুষ বিদেশ পাড়ি দেয়ার বিষয়টি দুঃখজনক উল্লেখ করে নিউরো স্পাইন সোসাইটি অফ বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. কামাল উদ্দিন বলেন, মেরুদণ্ড ও মাংসপেশি মানুষের শরীরের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এগুলোর সঙ্গে পুরো শরীর কোনো না কোনভাবে সম্পৃক্ত। তাই মেরুদণ্ডে কোন সমস্যা হলে তার প্রভাব পড়ে পুরো শরীরে। আর এ সমস্যার চিকিৎসাও বেশ জটিল ও ঝুঁকিপূর্ণ। কিন্তু মেরুদণ্ডের ছোট সমস্যা নিয়েও সাধারণ মানুষ বিদেশ পাড়ি দিচ্ছেন। তবে সুখবর হচ্ছে বাংলাদেশও এখন মেরুদণ্ডের শতভাগ চিকিৎসা সেবাদানে স্বনির্ভর। এখন থেকে স্পাইন চিকিৎসার জন্য বিদেশ পাড়ি দিতে হবে না। বরং উন্নত বিশ্বের দেশগুলোর মতো মেরুদণ্ডের চিকিৎসা ও অপারেশন পদ্ধতি এবং সেবাদান কার্যক্রমসহ সব ধরনের চিকিৎসাই এখন দেশে সম্ভব হচ্ছে।

 

সংবাদ সম্মেলনে চমেক হাসপাতালের নিউরো সার্জারি বিভাগের ভর্তিরত রোগীর তথ্য বিশ্লেষণ করে বিভাগটির বিভাগীয় প্রধান ডা. নোমান খালেদ চৌধুরী বলেন, চমেক হাসপাতালে নিউরো সার্জারি বিভাগে ভর্তি হওয়াদের মধ্যে বড় অংশ হচ্ছে স্পাইন বা মেরুদণ্ডের সমস্যা নিয়ে আসা রোগী। দিনদিন এসব রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। যদিও সুখবর হচ্ছে- এসব স্পাইন রোগীদের জন্য স্বতন্ত্র বিভাগ চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যা খুব শীঘ্রই চালু হবে। আর বাংলাদেশের জনগণের মেরুদণ্ডের রোগের সকল ধরনের চিকিৎসা সুবিধা চট্টগ্রামসহ বাংলাদেশে বিদ্যমান। আন্তর্জাতিক মানের এবং আমাদের দেশের নিউরো সার্জনগণ নিয়মিতভাবে এই চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

 

এভারকেয়ার হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ও বিশেষজ্ঞ নিউরো সার্জন ডা. আনিসুল ইসলাম খান বলেন, ‘চট্টগ্রামে ৩০ থেকে ৪৫ শতাংশ স্পাইন বা মেরুদণ্ডের রোগী আছে। এসব রোগীদের সেবা নিশ্চিত করছেন আমাদের নিউরো সার্জনরাই। সাধারণ মানুষের মধ্যে বিদেশগামীর একটা প্রবণতা আছে, কিন্তু মেরুদণ্ডের জটিল রোগের চিকিৎসা দেশেই সম্ভব হচ্ছে। অযথা বিদেশ গিয়ে মানুষ আর্থিক ও শারীরিক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। তবে বাংলাদেশে এখন নিউরো স্পাইনের সেবাদানের জন্য এবং এ সেবাকে স্থানীয় পর্যায়ে পৌঁছাতে সার্বিক কাজ করে যাচ্ছে নিউরো স্পাইন সোসাইটি। আমরা চাই বিভিন্ন চিকিৎসাসেবা কেন্দ্রগুলোকে বিশ্বমানের সেবাকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে।

 

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট