চট্টগ্রাম শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১৭ নভেম্বর, ২০২২ | ১২:০৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

যুবলীগের কমিটিতে ‘আ. লীগ’ নেতা!

সম্মেলনের প্রায় পাঁচ মাস পর কেন্দ্র থেকে ঘোষণা করা হয় দক্ষিণ জেলা যুবলীগের কমিটি আংশিক কমিটি। মো. দিদারুল ইসলামকে সভাপতি ও জহুরুল ইসলাম জহুরকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়। যুবলীগের নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক-দুজনই আওয়ামী লীগের পদ থেকে যুবলীগের শীর্ষ পদে এসেছেন। এতে কমিটি ঘোষণার পর থেকে অসন্তোষ বিরাজ করছে। কমিটি থেকে পদত্যাগ করেছেন দুই সহ-সভাপতি।

দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সর্বশেষ কমিটি হয় ২০১০ সালে। আ ম ম টিপু সুলতান চৌধুরীকে সভাপতি ও পার্থসারথী চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক করে কেন্দু থেকে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল। সদ্যঘোষিত কমিটির সভাপতি দিদারুল ইসলাম দাবি করেন, ‘আমার বড় ভাই নজরুল ইসলাম সভাপতি ছিলেন। আমি সভাপতি পদে নেই।’ তবে শিকলবাহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল করিম ফোরকান বলেন, ‘দিদারুল ইসলাম আমাদের কমিটির সভাপতি।’ এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী দাবি করেন, ‘শিকলবাহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি এখন নেই।’ কেন নেই এমন প্রশ্নের কোনো উত্তর দেননি তিনি।

যুবলীগের কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. জহুরুল ইসলাম জহুর বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক। বোয়ালখালী পৌরসভার মেয়র। দীর্ঘদিন পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ছিলেন তিনি।

বোয়ালখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল আমিন চৌধুরী পূর্বকোণকে বলেন, ‘জহুর আওয়ামী লীগের কমিটি থেকে পদত্যাগ করেননি। কমিটির তালিকায় জহুরের পদবী লিখা রয়েছে।’

কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের যৌথ স্বাক্ষরে কমিটি অনুমোদন দেন। ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির ৩৫ জনের নাম ঘোষণা করা হয়। আগামী ৬০ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করে অনুমোদনের জন্য কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়। কেন্দ্রীয় যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে তিন বছরের জন্য এ কমিটি অনুমোদন দেওয়ার বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এছাড়াও সদ্যঘোষিত যুবলীগের কমিটির সহ-সভাপতি পদ পেয়েছেন পটিয়ার জঙ্গলখাইন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মুর্তজা কামাল চৌধুরী, চন্দনাইশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য তৌহিদুল ইসলাম। সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পেয়েছেন চন্দনাইশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য বেলাল হোসেন মিঠু ও সদস্য পদ পেয়েছেন খরণা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য আবদুল হান্নান লিটন।

আওয়ামী লীগ নেতাদের নিয়ে যুবলীগের কমিটি ঘোষণার পর তীব্র অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে যুবলীগে।

কেন্দ্রীয় যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘মূল দলে থেকে সহযোগী সংগঠনের পদে আসার সুযোগ গঠনতন্ত্রে নেই।’

এদিকে, কমিটি ঘোষণার পর পদত্যাগ করেছেন সদ্যঘোষিত কমিটির দুই সহ-সভাপতি। এরা হলেন, জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক পার্থ সারথী চৌধুরী ও সিডিএ’র বোর্ড মেম্বার মো. ফারুক।

পার্থ সারথী চৌধুরী পূর্বকোণকে বলেন, ‘আমি সভাপতি পদে সিভি জমা দিয়েছিলাম। সহ-সভাপতি পদ প্রত্যাশা করিনি। তাই পদত্যাগ করেছি।’ পদত্যাগ করা অপর সহ-সভাপতি মো. ফারুক বলেন, ‘পারিবারিক ও শারীরিকভাবে দায়িত্ব পালনে অপারগতার কারণে পদত্যাগ করেছি।’

৩৫ জনের কমিটিতে ১০ সহ-সভাপতিরা হলেন, মোহাম্মদ ফারুক, পার্থ সারথী চৌধুরী, মো. মুর্তজা কামাল চৌধুরী, মো. তৌহিদুল আলম, মো. সাইফুল ইসলাম, মো. সহিদুল ইসলাম, মো. আকতার হোছাইন, নাসির উদ্দিন, এডভোকেট শাহাদাত কবির বাহাদুর, মো. মাইনুদ্দিন চৌধুরী। এছাড়া  মো. নাছির উদ্দিন মিন্টু ও সফিউল আজমকে যুগ্ম সম্পাদক এবং  মো. মুরিদুল আলম মুরাদ, বেলাল হোসেন মিঠু, মো. আবিদ হোসেন, মো. নুরুল আমিন, এ এন এম ফরহাদুল আলমকে সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে। এছাড়াও মো. সাইফুল হাসান টিটুকে প্রচার সম্পাদক, রাজু দাস হিরোকে দপ্তর সম্পাদক, আবু হায়দার মো. ওসমান গনিকে গ্রন্থনা প্রকাশনা সম্পাদক, মো. হাবীবুল হক চৌধুরীকে অর্থ সম্পাদক, মো. জামিল উদ্দিনকে শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক, মো. মহিউদ্দিন মুরাদকে ত্রাণ সম্পাদক, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীকে সমাজকল্যাণ সম্পাদক, জাহিদুল হক চৌধুরী মার্শালকে বিজ্ঞান, তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক, আমিনুল ইসলাম চৌধুরী কায়সারকে স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, ইঞ্জিনিয়ার অমল রুদ্রকে জনশক্তি ও কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক, মাহবুবুর রহমানকে তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক, কুতুব উদ্দিন শাহ্ধসঢ়; ইমন ও আরমান হেলালীকে সহ-সম্পাদক, আবু নাইম মো. মিনহাজ উদ্দিন, আব্দুল হান্নান লিটন, মো. মহিউদ্দিনকে সদস্য করা হয়েছে  কমিটিতে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৮ মে পটিয়া আর্দশ স্কুল মাঠে দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতি পদে ১৩ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ৩৯ জনসহ ৫২ জন পদপ্রত্যাশী জীবনবৃত্তান্ত জমা দিয়েছিলেন।

পূর্বকোণ/পিআর 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট