চট্টগ্রাম সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১ নভেম্বর, ২০২২ | ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

খাতুনগঞ্জে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে তদন্তকমিটি

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে সৃষ্ট জোয়ারের পানি ও জলাবদ্ধতায় দেশের বৃহত্তম ভোগ্যপণ্যের পাইকারি বাজার চাক্তাই-খাতুনগঞ্জে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, সিত্রাংয়ের কারণে পানি উঠে নষ্ট হচ্ছে মজুদ করা পণ্যের একটি বড় অংশ। সিত্রাংয়ের পাশাপাশি প্রায়ই উঠছে জোয়ারের পানিও। তাই সিত্রাং ও জোয়ারের পানিতে খাতুনগঞ্জে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করতে গঠন করা হয়েছে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি।

 

আজ সোমবার (৩১ অক্টোবর) খাতুনগঞ্জ আড়তদার সাধারণ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত কমিটির এক জরুরি সভায় এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী দুইদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সমিতির সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন। এ সময় সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি শোরশেদ আলম, সহ-সভাপতি মো. ফারুক আহমদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আবুল কাশেম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সজল মুহুরী, অর্থ সম্পাদক হারাধন চৌধুরী, সহ-অর্থ সম্পাদক তোফায়েল হোসেন তপন, ক্রীড়া ও সাংস্কুতিক সম্পাদক দেবাশীষ দাশ গুপ্ত, প্রচার সম্পাদক অজয় দত্ত, দপ্তর সম্পাদক পরিতোষ দে, শিল্প ও সাহিত্য সম্পাদক মো. নাজমুল হক, ধর্ম, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. মনির হোসেন গাজী, নির্বাহী সদস্য মো. জাকারিয়া (জহির), হারুনুর রশিদ, মো. শরীফ, মো. বেলাল উদ্দিন, মো. জয়নাল আবেদীন উপস্থিত ছিলেন।

 

সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীদের অনেক বড় ক্ষতি করেছে। এর প্রভাবে বাজারের প্রতিটি দোকানে পানি ঢুকে গুদামজাত করে রাখা পণ্যের একটি বড় অংশই নষ্ট হয়ে গেছে। অনেকে রোদে শুকিয়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কমিয়ে আনার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন।

 

সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন বলেন, অনেকদিন ধরে বাজারে এমনিতেই নেই বেচাবিক্রি। এতে আমদানি করা পণ্যের একটি বড় অংশই নষ্ট হয়ে গেছে। এছাড়া খাতুনগঞ্জে এখন প্রায়ই জোয়ারের পানি উঠছে। বিষয়টি চিন্তার। তাই সিত্রাং ও জোয়ারের পানিতে ক্ষয়ক্ষতির আসল চিত্র তুলে ধরতে আমরা একটি কমিটি গঠন করেছি। কমিটিকে দুইদিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

 

তিনি বলেন, প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আগামী বৃহস্পতিবার তদন্ত প্রতিবেদনসহ খাতুনগঞ্জের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে চাক্তাই-খাতুনগঞ্জ আড়তদার সাধারণ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করার কথা জানিয়েছেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন।

 

পূর্বকোণ/মামুন/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট