চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

২৩ অক্টোবর, ২০২২ | ১০:২৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে স্বামী-ভাশুর গ্রেপ্তার

নগরীর কোতোয়ালী থানার ফিরিঙ্গাবাজার এলাকায় গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে স্বামী ও ভাশুরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গৃহবধূর অভিযোগ, স্বামী সিরাজুল ইসলামের সহযোগিতায় বিকৃত যৌনাচার চালাতেন ভাশুর ইব্রাহিম রনি। এ ঘটনায় গৃহবধূ বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে শনিবার (২২ অক্টোবর) দিবাগত রাতে ফিরিঙ্গীবাজার মসজিদ ভিটা এলাকা থেকে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালী থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) রুবেল হাওলাদার জানান, আজ রোববার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে দুই আসামিকে অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল হালিমের আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। পুলিশের পক্ষ থেকে রিমান্ড আবেদন করা হলে আদালত রিমান্ড আবেদনের শুনানি আগামী মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) ধার্য করেছেন। 

 

মামলার এজাহার ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, গত ২১ জুলাই সামাজিকভাবে সিরাজুল ইসলামের সঙ্গে বিয়ে হয় ভুক্তভোগী নারীর। সিরাজ বিয়ের পর থেকে তার স্ত্রীর হাত-পা ও চোখ বেঁধে রুম অন্ধকার করে বিকৃতভাবে সহবাস করতো। চোখ বাঁধার কারণে কে সহবাস করতো তা দেখতে পারতো না গৃহবধূ। প্রথমদিকে স্বামীই সহবাস করছে মনে করতেন তিনি। কিন্তু প্রথমদিকে সন্দেহ না করলেও পরবর্তীতে গৃহবধূর সন্দেহ হতে থাকে। গত ৫ সেপ্টেম্বর একই কায়দায় অন্ধকার কক্ষে বিকৃতভাবে সহবাস করতে গেলে একপর্যায়ে তার হাতের বাঁধন খুলে যায়। চোখের কাপড় সরিয়ে দেখতে পায় ভাশুর মো. ইব্রাহিম রনিকে। এই বিষয়ে স্বামী সিরাজের কাছে জানতে চাইলে উল্টো গৃহবধূকে মারধর করে এবং মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে কোতোয়ালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গৃহবধূ বাদি হয়ে মামলা করেন।  

 

পূর্বকোণ/আরআর/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট