চট্টগ্রাম শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১৪ অক্টোবর, ২০২২ | ১০:৪৫ পূর্বাহ্ণ

বিজ্ঞপ্তি

উইঘুর মুসলমানদের উপর নির্যাতন বন্ধের দাবি

চীনের উইঘুর মুসলমানদের উপর চালানো নির্যাতনকে চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন দাবি করে জাতিসংঘ ও মুসলিম বিশ্বকে জোরালো ভূমিকা রাখার আহবান জানিয়েছে আলেম মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদ। পাশাপাশি চীনের পণ্য বয়কটের জন্য দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

শুক্রবার (১৪ অক্টোবর) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল খালেক মিলনায়তনে এক প্রতিবাদ ও আলোচনা সভায় বক্তারা এ আহ্বান জানান।

এতে আলেম মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, বিশিষ্ট লেখক, গবেষক, বরেণ্য শিক্ষাবিদ, বিভিন্ন ইসলামী দলের শীর্ষ নেতারা বক্তব্য রাখেন।

প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন- চীনে ২২ লাখ তুর্কি ও উইঘুর মুসলিমদের দীর্ঘদিন ধরে গণহত্যা, হত্যা, ধর্ষণ, নির্যাতন, যৌন নীপিড়ন, জোরপূর্বক আটকে রাখার প্রতিবাদে এ ‘প্রতিবাদ ও আলোচনা সভার’ আয়োজন করেছে। চীনা সরকার মিডিয়ার সকল কর্মকাণ্ড স্তব্ধ রেখে বছরের পর বছর ২২ লাখ মুসলিমকে বিভিন্ন ডিটেনশন ক্যাম্পে আটকে রেখে তাদের প্রতিনিধির মাধ্যমে নির্যাতন, যৌন নীপিড়ন, হত্যাসহ অপরাধ কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় চীনারা পাকিস্তানিদের সহযোগিতা করেছিল। বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে এদেশের মুক্তিকামী জনতা তাদের সহযোগিতা পায়নি। মিয়ানমারের সরকারের জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবসন বন্ধে চীনের পরোক্ষ যোগসাজশ রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন- আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বলতে চাই, আপনিতো এখন বিশ্ব নেতৃত্বের আসনে সমাসীন। আপনার অদম্য সাহস এবং সুদূরপ্রসারী নেতৃত্বে বাংলাদেশ অনেকদূর এগিয়ে গেছে এবং আপনি সারাবিশ্বের প্রশংসা ও কুড়িয়েছেন। আপনার সাহসিকতা সারাবিশ্বে প্রশংসিত, আপনার সাহসিক নেতৃত্ব মুসলিমদের পক্ষে যাবে সেটাই আমরা আশা করি। আপনিতো পারেন চীনের মুসলিম নির্যাতনের বিরুদ্ধে কথা বলতে। সাহস করে বলুন দেখবেন আপনার পাশে আরও অনেক বিশ্ব নেতা ও দেশ দাঁড়িয়ে যাবে। আর এতেই চীনের উইঘুরসহ বিভিন্ন অংশে বিপদগ্রস্থ আমার ভাই-বোনেরা চীনা সরকারের করাল থাবা থেকে মুক্তি পাবে।

আলেম মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি মুফতি ওসমান গনি চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আঞ্জুমানে দাওয়াতে ইসলাহ বাংলাদেশের আমীর আল্লামা আনাস মাদানী। প্রধান আলোচক ছিলেন আলেম মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদের ভাইস চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলী ফারুকী। আলোচনায় অংশ নেন ইউসিটিসি ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. বেলান নুর আজিজী, দৈনিক যুগান্তরের সহ-সম্পাদক মুফতি তানজিল আমীর, সংদের কেন্দ্রীয় মহাসচিব ইয়াসীন হাবিব, প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা আব্দুল জাব্বার, মাওলানা শামসুল আলম, অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রহিম, কেন্দ্রীয় সংসদের উপদেষ্টা মাওলানা জসিম উদ্দিন, কক্সবাজার ছাত্র ফোরাম সভাপতি এইচএম কফিল উদ্দিন, ইসলামী ছাত্র সেনার কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি কেএম খাজা বাকি বিল্লাহ, আলেম মুক্তিযোদ্ধা কক্সবাজার জেলার উপদেষ্টা মাওলনা কেফায়েত উল্লাহ ইলিয়াস, লেখক খন্দকার হামিদ উল্লাহ, কেন্দ্রীয় সংসদের শিক্ষা সম্পাদক রিদওয়ানুল কাবীর, কক্সবাজার জেলা যুব আন্দোলনের সদস্য সাইফুল্লাহ চৌধুরী, ইসলামী ছাত্র খেলাফত সভাপতি, এমএ কাসেম, কক্সবাজার জেলা আহবায়ক আরএএম ফরিদুল আলম, কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মাওলানা শওকত হুসাইন চাটগামী, চৌধুরী, মাওলানা আতাউল্লাহ ত্বকী, হাবিবুর রহমান হবিব প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

পূর্বকোণ/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট