চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

সর্বশেষ:

১৩ আগস্ট, ২০১৯ | ১:১৮ পিএম

নিজস্ব সংবাদদাতা, চন্দনাইশ

চন্দনাইশে গরু চোরকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিল জনতা

চন্দনাইশের বৈলতলী এলাকায় এক গরু চোরকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে জনতা। গত ১২ আগস্ট সন্ধ্যায় উপজেলার বৈলতলী উত্তর জাফরাবাদ এলাকায় মৃত মো. লোকমানের ছেলে গরু চোর মো. পারভেজ (২৬) কে স্থানীয় জনগণ আটক করে গণপিটুনি দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে গরু চোর পারভেজকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করান। কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

জানা যায়, গত ৯ আগস্ট উত্তর জাফরাবাদের মৃত হেফাজুতুর রহমানের ছেলে মঈনুদ্দিন চৌধুরী (৫৮) কোরবানির জন্য ৯০ হাজার টাকা মূল্যের একটি গরু ক্রয় করেন। চোরের দল গত ১০ আগস্ট রাতে গরুটি চুরি করে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে গত ১০ আগস্ট মঈনুদ্দিন চুরির বিষয়টি ৩ চোরের নামসহ পুলিশকে জানালে ঐদিন ভোর রাতে গরুটি উদ্ধার করে পুলিশ। কিন্তু ৩ গরু চোর পালিয়ে যায়। গত ১২ আগস্ট কোরবানের দিন সন্ধ্যায় পারভেজ এলাকায় আসলে স্থানীয় জনগণ পারভেজকে গণ-পিটুনি দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ সে মামলায় পারভেজকে আটক দেখিয়ে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রেখেছেন বলে জানান।

থানা অফিসার ইনচার্জ কেশব চক্রবর্ত্তী বলেছেন,  মঈনুদ্দিনের দায়ের করা অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঐদিন ভোর রাতে গরুটি উদ্ধার করা হয়। গত ১২ আগস্ট সন্ধ্যায় জনগণ গরু চোর পারভেজকে আটক করে মারধর করে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পারভেজকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দিয়েছে। শারীরিকভাবে সুস্থ হলে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে। তার বিরুদ্ধে চন্দনাইশ থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে তিনি জানান। অপর ২ আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

পূর্বকোণ/পলাশ

The Post Viewed By: 390 People

সম্পর্কিত পোস্ট