চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

৭ অক্টোবর, ২০২২ | ১১:২২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘মন্দ’ তাড়াতে উদ্যোগ নিন সৌন্দর্যবর্ধনে

সন্ধ্যা নামলেই ছিনতাইকারী, বখাটে ও মাদকসেবীদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয় নগরীর খুলশী থানাধীন এশিয়ান হাইওয়ে সংলগ্ন নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের গেট থেকে বাটা গলি পর্যন্ত। সন্ধ্যার পর ভয় এবং দিনে দুর্গন্ধে চলাচলের অনুপযোগী প্রায় ১০০ মিটারের এই পথে এখন পথচারীদের চলাচল নেই বললেই চলে। সম্প্রতি একটি ধর্ষণ ও কয়েকটি ছিনতাইয়ের ঘটনার পর আরো বেশি আতঙ্কে স্কুলশিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক। অন্যদিকে, আখতারুজ্জামান ফ্লাইওভারের নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন র‌্যাম্পের নিচে অবৈধভাবে কিছু টং দোকান গড়ে উঠেছে।

বর্তমানে এই বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত মোট দুই হাজার ১৯৬ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। স্কুল শুরুর পর থেকে ছুটি হওয়া পর্যন্ত অভিভাবকের একাংশ স্কুলের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকেন। এসময় সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়তে হয় নারী অভিভাবকদের।

অভিভাবকদের একজন নাসরিন সুলতানা বলেন, বাচ্চাকে স্কুল থেকে নিতে এসে বাইরে অপেক্ষা করতে হয়। কিন্তু এখানে অভিভাবকদের বসার কোন জায়গা নেই। তাছাড়া, স্কুল গেট থেকে বাটা গলি পর্যন্ত সড়কের এই অংশ দুর্গন্ধের জন্য থাকার উপায় নেই। স্কুলের সামনের পরিবেশ অন্তত পরিষ্কার ও দুর্গন্ধমুক্ত রাখা উচিত।

এছাড়া, এই অংশ বখাটে ও মাদকসেবীর নিরাপদ স্থানে পরিণত হচ্ছে। এই অংশে যদি স্কুল বা সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে জামালখান এলাকার মত কিছু বসার জায়গা ও ফুলের বাগান স্থাপন করে তাহলে অভিভাবকদের দুর্ভোগ লাগব হতো। এছাড়া, মাদকসেবী ও বখাটেদের দখলে থাকতো না।

নগরীর নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জিয়াউল হায়দার হেনরী বলেন, স্কুল গেট থেকে বাটা গলি পর্যন্ত জায়গাটি স্কুলের। তবে আমার ব্যক্তিগতভাবে সেখানে কিছু করার সুযোগ নেই। সেখানে কিছু করতে গেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের প্রয়োজন রয়েছে।

৮ নং শোলকবহর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. মোরশেদ আলম বলেন, এই জায়গায় আগেও কয়েকটি দুর্ঘটনা ঘটেছে। তাই এই অংশ সিসিটিভির আওতায় আনা ছাড়াও সেখানে সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য আমি ব্যক্তিগতভাবে উদ্যোগ নিয়েছি। তবে আমার মনে হচ্ছে এখানে জায়গার মালিকানা নিয়ে সমস্যা রয়েছে। তাই এখনো আমরা কোন সিদ্ধান্তে আসতে পারিনি।

তিনি আরো বলেন, আমরা দেখেছি স্কুল চলাকালীন সময় কিংবা ছুটির আগে অভিভাবকরা দীর্ঘক্ষণ বাইরে দাঁড়িয়ে থাকেন। আশে পাশে যেহেতু বসার কোন জায়গা না থাকায় নাসিরাবাদ সরকারি স্কুল গেট থেকে বাটা গলি পর্যন্ত এই অংশে বাগান করার জন্য ইতোমধ্যে আমি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের সাথে আলাপ করেছি। সেখানে বাগান করলে একদিকে যেমন সৌন্দর্য বাড়বে, অন্যদিকে অভিভাবকদের বসার স্থান হবে।

 

জানতে চাইলে খুলশী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শহীদুর রহমান, আমার যতটুকু মনে পড়ে, স্কুল গেট থেকে বাটা গলি পর্যন্ত সড়কের এই অংশ সিসি টিভির আওতায় আনতে কাউন্সিলর আমাদের কাছে একটি প্রস্তাব করেছে। প্রস্তাবটি এখন কোন পর্যায়ে আছে, আমার জানা নেই। এটা আমাদের ওসি স্যার ভালো বলতে পারবেন।

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট