চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর, ২০২২

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ১২:০৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইচ্ছেমাফিক জমার টাকা আদায় করছে সিএনজি ট্যাক্সি মালিকেরা

সরকারি নীতিমালা অমান্য করে সিএনজি ট্যাক্সি মালিকেরা নিজেরাই দৈনিক জমার টাকা বাড়িয়ে দিয়েছে। ট্যাক্সি মালিকদের এই স্বেচ্ছাচারিতায় ক্ষোভ প্রকাশ করে এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে পুলিশ কমিশনারের কাছে আবেদন করেছে চট্টগ্রাম অটোরিকশা-অটোটেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন। তারা সরকার নির্ধারিত জমার টাকার অতিরিক্ত আদায়ের প্রতিবাদে আগামী শনিবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ ডেকেছে। ট্যাক্সি চালকেরা জানিয়েছেন, জমার বাড়তি টাকা পরিশোধে হিমশিম খেতে হচ্ছে চালকদের। অন্যদিকে, মালিকের বর্ধিত জমার টাকার মাশুল প্রত্যক্ষভাবে যাত্রীদের ওপরই পড়ছে। 

 

চট্টগ্রাম অটোরিকশা-অটোটেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশিদ পূর্বকোণকে বলেন, সরকারি গেজেটে ট্যাক্সির দৈনিক জমা ৯শ টাকা করা হয়। তা কিন্তু বেশি। তারপরও সরকারি নীতিমালা মেনে ৯শ টাকা হারে জমা দিয়ে আসছেন চালকেরা। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে মালিকেরা জমা বাড়িয়ে ৯৭০-৯৮০ টাকা থেকে এক হাজার টাকা পর্যন্ত নিচ্ছেন। যা সড়ক পরিবহন আইনের পরিপন্থী। এ বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আমরা পুলিশ কমিশনারকে স্মারকলিপি দিয়েছি।

 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৫ সালের ২২ সেপ্টেম্বর সিএনজি ও পেট্রোল চালিত ফোর স্টোক থ্রি-হুইলার নীতিমালা-২০০৭ সংশোধন করা হয়। এতে ট্যাক্সির মালিকের জমা ৬শ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯শ টাকা করা হয়। ট্যাক্সিচালকেরা জানান, করোনা মহামারীর কারণে দু’বছর ট্যাক্সি চলাচল বন্ধ থাকায় অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাতে হয়েছিল ট্যাক্সি চালকদের। পরিবার-পরিজন নিয়ে অর্থ-কষ্টে ভুগেছিলেন অনেকেই। কেউ কেউ বাধ্য হয়ে রিকশা-ভ্যান চালাতে বাধ্য হয়েছিলেন। করোনার ধাক্কা কাটিয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরলেও নতুন করে ধাক্কা খেতে হয় চালকদের।

 

শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ বলেন, সড়কে রাইড শেয়ারিং বা মোটর সাইকেলে যাত্রী পরিবহন বেড়ে গেছে। এতে ট্যাক্সির যাত্রী অনেকটা কমে গেছে। এছাড়াও ২০১৫ সালের পর থেকে গ্যাসের দাম চার দফায় বাড়ানো হয়। এসব সামাল দিয়ে ট্যাক্সির দৈনিক জমা জোগাড় করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে চালকদের। তিনি বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম লাগামহীনভাবে বেড়ে চলেছে। তার ওপর চালকদের ওপর বাড়তি জমার চাপ মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’তে পরিণত হয়েছে। সরকার নির্ধারিত জমার টাকার অতিরিক্ত আদায়ের প্রতিবাদে আগামী শনিবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ ডেকেছে।

পূর্বকোণ/পিআর 

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট