চট্টগ্রাম রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩

সর্বশেষ:

২৪ আগস্ট, ২০২২ | ৪:৫০ অপরাহ্ণ

চবি সংবাদদাতা

‌‌‌‌‌`ত্রুটিপূর্ণ’ চবির দুই ইউনিটের ফলাফল

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতকের ভর্তি পরীক্ষার দুইটি ইউনিটের প্রকাশিত ফলাফলে ‘ত্রুটির’ অভিযোগ উঠেছে। যশোর বোর্ডের অধীনে থাকা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের জিপিএ নম্বর যোগের ক্ষেত্রে ভুল করায় প্রকাশিত ফলাফলে এমন ত্রুটি দেখা গেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের অজ্ঞতার কারণে এমন অসংগতি হয়েছে বলে দাবি করছেন ইউনিট সংশ্লিষ্টরা।

তবে ফলাফলে ত্রুটি প্রমাণিত হলে, তা সংশোধনের কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এই বিষয়ে আজ বুধবার (২৫ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির জরুরি সভা আহ্বান করা হয়েছে।

জানা যায়, গত ২০ আগস্ট ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিট ও বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করে আইসিটি সেল। এরপরই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া এক ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী আইসিটি সেল বরাবর জিপিএ নম্বর যোগের ক্ষেত্রে ভুল হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। পরে অভিযোগটি খতিয়ে দেখতে গিয়ে দেখা যায়, যশোর বোর্ডের অধীনে থাকা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের প্রাপ্ত এসএসসির জিপিএ’র তিন ডিজিটের শেষ ডিজিট গণনা করা হয়নি। এমন অসংগতি ‘সি’ ইউনিটেও। অভিযোগকারী শিক্ষার্থীও ছিল যশোর বোর্ডের।

ত্রুটিপূর্ণ ফলাফলের বিষয়ে জানতে মুঠোফোনে আইসিটি সেলের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ খায়রুল ইসলামকে একাধিকবার ফোন দিলেও যোগাযোগ করা যায়নি।

তবে ত্রুটির বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সি’ ইউনিটের সমন্বয়ক ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো. হেলাল উদ্দীন নিজামী বলেন, ‘ভুল হতে পারে আইসিটি সেল কিংবা সফটওয়্যারের। আমাদের কোনো ভুল হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘চবির ভর্তি পরীক্ষা ১২০ নম্বরে অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ১০০ নম্বর লিখিত ও ২০ নম্বর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের জিপিএ থেকে নির্ধারণ করা হয়। ফলাফল প্রকাশ করার আগে আমরা আইসিটি সেলে লিখিত ১০০ নম্বরের পরীক্ষার যে ফলাফল তৈরি করে পাঠিয়েছি, সেখানে কোন ভুল নেই। তবে জিপিএ’র ২০ নম্বর গণনার ক্ষেত্রে আইসিটি কিংবা সফটওয়্যারের ভুলের কারণে এমন ত্রুটি দেখা দিতে পারে।’

‘এ’ ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর ও জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. তৌহিদ হোসেন বলেন, ‘সফটওয়্যারের যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এমনটা হয়ে থাকতে পারে। তবে আমরা বিষয়টি অবগত হওয়ার পরপরই ভর্তি কমিটির মিটিং ডেকেছি। সকাল ১১টায় কোর-কমিটির সভা আছে। সেখানে বিস্তারিত আলোচনা হওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান বলেন, ‘যান্ত্রিক ত্রুটির বিষয়টি আমাদের জানানো হয়েছে। ভর্তি কমিটির সদস্যরা সিদ্ধান্ত নিবেন এ বিষয়ে। যদি ভুল হয় সেটা আবশ্যই সংশোধন করা হবে।’

পূর্বকোণ/পিআর/এএইচ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট