চট্টগ্রাম সোমবার, ৩০ জানুয়ারি, ২০২৩

ফাইল ছবি

২৪ আগস্ট, ২০২২ | ১২:২৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম বন্দরের সাথে কাজ করতে আগ্রহ দুবাই পোর্ট ওয়ার্ল্ডের

চট্টগ্রাম বন্দরের ধারাবাহিক প্রবৃদ্ধি ও সক্ষমতা বাড়ার সাথে সাথে বিদেশি বন্দরগুলো এবং পৃথিবী বিখ্যাত লজিস্টিক প্রতিষ্ঠানগুলোর চট্টগ্রাম বন্দরের প্রতি আগ্রহ বেশ বেড়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) ডিপি (দুবাই পোর্ট) ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষ চট্টগ্রাম বন্দরের সাথে কাজ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তারা চট্টগ্রাম বন্দরের বে-টার্মিনাল অপারেশনাল কাজের পাশপাশি এবং লজিস্টিকস সাপোর্টের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এছাড়া চাহিদা থাকার কারণে প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশে ইনল্যান্ড কনটেইনার ডিপো (আইসিডি) এবং মেরিটাইম সেক্টরেও বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী সাথে ডিপি ওয়ার্ল্ডের সাব-কন্টিনেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিজওয়ান সুমারের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল সাক্ষাৎ করতে এসে এ আগ্রহের কথা প্রকাশ করেন। বৈঠকে বাংলাদেশ এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো জোরদারের বিষয়ে আলোচনা হয়।

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামাল, ডিপি (দুবাই পোর্ট) ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষের সাব-কন্টিনেন্টের পরিচালক (বাণিজ্যিক ও বিজনেস ডেভেলপমেন্ট) কেভিন ডি’সুজা, ডিপি ওয়ার্ল্ড এর বাংলাদেশস্থ কান্ট্রি ডিরেক্টর শামীমুল হক এবং মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ গত ৩১ মে বে টার্মিনাল প্রকল্পের ডিটেইল ড্রয়িং ডিজাইন করতে বন্দরের সাথে কুনওয়া ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড কনসালটিং কোম্পানি লিমিটেড এবং ডিয়েনইয়াং ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেড নামের কোরিয়ান দুটি পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের চুক্তি অনুষ্ঠিত হয়। চুক্তির আওতায় প্রতিষ্ঠান দুটি বে টার্মিনাল প্রকল্পে বন্দরের অর্থায়নে নির্মিত একটি টার্মিনালের ডিটেইল ড্রয়িং ডিজাইন, টেন্ডার ডকুমেন্ট তৈরি এবং কন্সট্রাকশন কাজের তত্ত্বাবধান করবে। প্রতিষ্ঠান দুটি প্রথম ধাপে ৬ মাসে ডিটেইল ড্রয়িং ডিজাইন তৈরির কথা রয়েছে। পরবর্তী আড়াই বছরে কনস্ট্রাকশন কাজের তত্ত্বাবধান করবে। এসব কাজের জন্য চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের ব্যয় হবে ১২৬ কোটি ৪৯ লাখ ৭৩ হাজার ৯৮৬ টাকা।

এদিকে প্রকল্পের আওতায় মোট ৩টি টার্মিনালের মধ্যে একটি নির্মিত হবে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের অর্থায়নে। বাকি দুটি টার্মিনাল পিপিপি ভিত্তিতে বিদেশি বিনিয়োগে নির্মাণ করা হবে। এই সিদ্ধান্তের পর পারই বিদেশি বহু সংস্থা বে টার্মিনাল নির্মাণ ও পরিচালনার প্রস্তাব দিয়ে আসছে। যার মধ্যে রয়েছে- চীনের চায়না মার্চেন্টস স্পোর্ট হোল্ডিং কোম্পানি লিমিটেড; সংযুক্ত আরব আমিরাতের ডিপি ওয়ার্ল্ড; সিঙ্গাপুরভিত্তিক কোম্পানি পিএসএ ইন্টারন্যাশনাল, ডেনমার্কের এপিএম টার্মিনালস; ভারতের আদানি পোর্ট; দক্ষিণ কোরিয়ার হুন্দাই গ্রুপ এবং ইন্টারন্যাশনাল পোর্ট ডেভেলপমেন্ট কো অপারেশন। তবে এখন পর্যন্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়নি বিদেশি কোন প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে ওই দুটি টার্মিনালের কাজ করা হবে।

 

পূর্বকোণ/আর

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট