চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

সর্বশেষ:

১০ আগস্ট, ২০২২ | ৬:৪৭ অপরাহ্ণ

চবি সংবাদদাতা

চবি ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের ওপর অনাস্থা, আন্দোলনের হুঁশিয়ারি একাংশের

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল ও সাধারণ সম্পাদকের প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করেছে ৩০ জন সহ-সভাপতিসহ মোট ৯৪ জন নেতৃবৃন্দ। এ সময় ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদবঞ্চিত ত্যাগী ও পরিশ্রমী কর্মীদের মূল্যায়নসহ ৩ দফা দাবি জানান তারা। দাবি না মানলে আগস্টের পর তারা আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেন।

বুধবার (১০ আগস্ট) চবি সাংবাদিক সমিতির (চবিসাস) কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব বিষয় জানানো হয়।

তাদের দাবিসমূহ হলো- পদবঞ্চিত ত্যাগী ও পরিশ্রমী কর্মীদের মূল্যায়ন করে কমিটিতে অর্ন্তভুক্তকরণ, কমিটিতে পদপ্রাপ্ত নেতাদের যোগ্যতা অনুযায়ী যোগ্যস্থানে ক্রমানুসারে পুনর্মূল্যায়ন করা এবং উক্ত কমিটিতে পদপ্রাপ্ত বিবাহিত, চাকরিজীবী ও দীর্ঘদিন রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ খতিয়ে দেখে যথাযথ সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠকালে শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও ভিএক্স গ্রুপের নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় বলেন, গত ৩১ জুলাই চবি ছাত্রলীগের বহুল প্রতিক্ষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। দুই সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণার ৩ বছর পর এ কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হয়। যার মেয়াদ দু’বছর আগেই উত্তীর্ণ হয়েছে। কমিটিতে রাজপথের পরীক্ষিত ও ত্যাগী কর্মীদের বাদ দিয়ে অযোগ্য ও বিতর্কিত অনেককে স্থান দেওয়া হয়েছে। যা সংগঠনকে ভবিষ্যতে পঙ্গুত্বের দিকে ঠেলে দেবে। এমতাবস্থায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নিকট আমাদের দাবিসমূহ বিবেচনা করে যথাযথ সাংগঠনিক পদক্ষেপ গ্রহণের আবেদন করছি।

আরেক সহ-সভাপতি ও বাংলার মুখ গ্রুপের নেতা আবু বকর তোহা শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপুর নিকট প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেন, উনার (সম্পাদক) কাছে জানতে চাই, আমার গ্রুপের যে লিস্ট আমাদের নেতা আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন ভাইয়ের হাত থেকে আপনার (সম্পাদকের) হাতে দেওয়ার পর তাদের সবাইকে পদ দেওয়ার অঙ্গিকার করেছিলেন। কিন্তু কমিটি হওয়ার পর দেখা যায় ওই লিস্টের ম্যাক্সিমামই বাদ পড়েছে,  এর কারণ কী?

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও রেড সিগনাল গ্রুপের নেতা রকিবুল হাসান দিনার, একাকার গ্রুপের নেতা মঈনুল ইসলাম রাসেল, কনকর্ড গ্রুপের নেতা আবরার শাহরিয়ার, উল্কা গ্রুপের নেতা সুমন খান ও এপিটাফ গ্রুপের নেতা সাজ্জাদ আনাম পিনন প্রমুখ।

 

পূর্বকোণ/এএস/পারভেজ

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত পোস্ট